বাজারে এলো অ্যাপলের নতুন ৪ আইফোন

চার ধরনের মডেল নিয়ে বাজারে এসেছে আইফোন ১২। এতে থাকছে ৫জি কানেক্টিভিটি। অ্যাপল প্রেমীদের এই ফোনটি দেখে আইফোন ৫ এর কথা মনে পড়ে যাবে। তবে এবার এই ফোনের একটি মিনি সংস্করণ নিয়ে এসেছে অ্যাপল।

অ্যাপলের নতুন চার আইফোনের মডেল হলো- আইফোন ১২ মিনি, আইফোন ১২, আইফোন ১২ প্রো এবং আইফোন প্রো ম্যাক্স। আইফোনগুলো ৫জি প্রযুক্তি সাপোর্ট করবে।

এতে রয়েছে অ্যাপলের এ-ফোরটিন বায়োনিক চিপ। অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে আছে আইওএস-১৪। অ্যাপলের দাবি, এই সিরিজের ডিভাইসগুলো আগের চেয়ে অনেক দ্রুত গতিতে কাজ করবে।

মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) ভার্চ্যুয়াল ইভেন্টে আইফোন ১২ সিরিজ লঞ্চ করে অ্যাপল। আইফোন ১২ মিনি এই সিরিজের অন্য তিনটি স্মার্টফোনের তুলনায় আকারে ছোট এবং অপেক্ষাকৃত সাশ্রয়ী।

৬৪ গিগাবাইট স্টোরেজ সম্পন্ন আইফোন ১২ মিনির মূল্য ৬৯৯ মার্কিন ডলার, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ৫৯ হাজার টাকার বেশি (এক ডলার সমান ৮৫ টাকা ধরে)। ১২৮ জিবি এবং ২৫৬ জিবি স্টোরেজ সম্পন্ন আইফোন ১২ মিনির মূল্য যথাক্রমে ৭৪৯ ডলার (প্রায় ৬৪ হাজার টাকা) এবং ৮৪৯ ডলার (৭২ হাজার টাকা)।

৬৪ জিবি স্টোরেজের আইফোন ১২ এর মূল্য ৭৯৯ ডলার, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ৬৮ হাজার টাকা। ১২৮ জিবি এবং ২৫৬ জিবি স্টোরেজের আইফোন ১২ এর মূল্য যথাক্রমে ৮৪৯ ডলার (৭২ হাজার টাকা) এবং ৯৪৯ ডলার (প্রায় ৮১ হাজার টাকা)।

১২৮ জিবি, ২৫৬ জিবি এবং ৫১২ জিবি আইফোন ১২ প্রো এর মূল্য যথাক্রমে ৯৯৯ ডলার (৮৫ হাজার টাকা), ১ হাজার ৯৯ ডলার (৯৩ হাজার টাকা) এবং ১ হাজার ২৯৯ ডলার (১ লাখ ১০ হাজার টাকা)।

১২৮ জিবি, ২৫৬ জিবি এবং ৫১২ জিবি আইফোন প্রো ম্যাক্স এর মূল্য যথাক্রমে ১ হাজার ৯৯ ডলার (৯৩ হাজার টাকা), ১ হাজার ১১৯ ডলার (৯৫ হাজার টাকা) এবং ১ হাজার ৩৯৯ ডলার (১ লাখ ১৯ হাজার টাকা)।

আইফোন ১২ মিনির পর্দার আকৃতি ৫.৪ ইঞ্চি এবং আইফোন ১২ এর ৬.১ ইঞ্চি। প্রো এর পর্দার আকৃতি ৬.১ ইঞ্চি এবং প্রো ম্যাক্সের ৬.৭ ইঞ্চি। ডিভাইসগুলোতে এলসিডির বদলে ওএলইডি প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে।

আইফোন ১২ সিরিজের প্রতিটি ডিভাইসে ব্যবহার করা হয়েছে এইচডিআর ডিসপ্লে। প্রতিটি আইফোনই যে কোনো ধরনের তরল, পানি ও ধুলাবালি প্রতিরোধ করতে সক্ষম।

আইফোন ১২ সিরিজের ডিভাইসগুলো ক্যামেরার দিক থেকে সবচেয়ে উন্নত। বিশেষ করে প্রো মডেলগুলোর ক্যামেরা আইফোনে প্রথমবারের মতো এসেছে ইন-ডেপথ ক্যামেরা টেকনোলজি।

ইভেন্টে অ্যাপলের সিইও টিম কুক দাবি করেছেন, আইফোন ১২ প্রো এর ক্যামেরা দিয়ে চলচ্চিত্রও নির্মাণ করা সম্ভব।

তবে প্রথমবারের মতো আইফোনের সঙ্গে কোনো চার্জার বা হেডফোন দেওয়া হচ্ছে না। অ্যাপল জানিয়েছে, পরিবেশের ওপর নেতিবাচক প্রভাব কমানোর জন্য এ সিদ্ধান্ত।

অর্থসূচক/কেএসআর