দেখা মিলল বিরল দু’মুখো হাঙরের, হতবাক মৎস্যজীবীরা

কয়েকমাস আগেই ভারতের উড়িষ্যার কেওনঝড় জেলার দেহনকিকোটে এলাকার একটি বাড়ি থেকে দুমুখো উলফ স্নেক উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছিল। পৌরাণিক কাহিনীতে বর্ণিত ওই অদ্ভূতদর্শন প্রাণীকে দেখে চমকে উঠেছিল মানুষ। এবার দেশটির মহারাষ্ট্রের পালঘর সমুদ্র উপকূলে দেখা মিলল বিরল দু’মুখো হাঙরের। যার ছবি ও ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হওয়া পরেই ওই এলাকার মৎস্যজীবীদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষরাও হতবাক হয়ে পড়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, অন্যদিনের মতো গত শুক্রবারও সমুদ্র মাছ ধরতে গিয়েছিলেন মহারাষ্ট্রের পালঘর জেলার সতপতি গ্রামের মৎস্যজীবী নীতিন পাটিল। মাছ ধরে বাড়ি ফেরার সময় তার চোখে পড়ে জালে একটি অদ্ভূতদর্শন প্রাণী আটকে রয়েছে। হাত দিয়ে তুলে দেখেন সেটি ৬ ইঞ্চির ছোট্ট একটি দু’মুখো হাঙর। তাকে দেখে প্রথম নিজের চোখকে বিশ্বাস করতে পারেননি নীতিন পাটিল। তবে একটু ধাতস্থ হতেই নিজের মোবাইল থেকে ওই বাচ্চা হাঙরটির কয়েকটি ছবি ও ভিডিও তুলে রাখেন তিনি। পরে হাঙরটিকে ফের পানিতে ছেড়ে দেন।

এ প্রসঙ্গে নীতিন বলেন, এত ছোট মাছ বিশেষ করে হাঙর আমরা খাই না। তাই মাছটি দেখে আমার অদ্ভূত লাগলেও পানিতে ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেই। তার আগে অবশ্য কিছু ছবি তুলে নিয়েছি।

নীতিন পাটিলের প্রতিবেশী অন্য এক মৎস্যজীবী জানান, তারা এ ধরনের দু’মুখো বাচ্চা হাঙর আগে কখনো দেখেননি। তাই প্রথমে সবাই অবাক হয়ে পড়েছিলেন। পরে হাঙরটির ছবি ও ভিডিও মুম্বইয়ের ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর এগ্রিকালচারাল রিসার্চ- সেন্ট্রাল মেরিন ফিশারিজ রিসার্চ ইনস্টিটিউট (ICAR-CMFRI) গবেষকদের দেখানো হয়েছে। তারাও এটাকে বিরল ঘটনা বলে জানিয়েছেন।

হাঙরটির ছবি দেখে সমুদ্র বিজ্ঞানীরা বলছেন, এমনিতেই দুমুখো হাঙরের দেখা পাওয়া যায় না। তার উপর ভারতীয় উপকূলে এই অদ্ভূতদর্শন প্রাণীর সন্ধান পাওয়া খুবই বিরল ঘটনা।

অর্থসূচক/কেএসআর