আটকের পর পিবিআই হেফাজতে আসামির মৃত্যু

বাগেরহাটে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)-এর হেফাজতে রাজা ফকির (২২) নামের এক হত্যা মামলার আসামির মৃত্যু হয়েছে। পরিবারের অভিযোগ পুলিশি নির্যাতন করে তাকে হত্যা করেছে।

সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় বাগেরহাট সদর হাসপাতালে রাজা ফকিরের লাশ পড়ে রয়েছে এমন খবর পেয়ে পরিবারের সদস্যরা সেখানে উপস্থিত হয়। এ সময় পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত সাংবাদিকদের কাছে এমন অভিযোগ করেন। নিহত রাজা বাগেরহাট সদর উপজেলার খানজাহান আলী (রহ.) মাজারের খাদেম বাবু ফকিরের ছেলে। সে তালিম মল্লিক নামে এক কলেজছাত্র হত্যা মামলার প্রধান আসামি।

নিহতের পিতা বাবু ফকিরের অভিযোগ, রবিবার দুপুরে তার ছেলেকে পটুয়াখালী থেকে ধরে নিয়ে আসে পিবিআই। সে তালিম মল্লিক নামে এক কলেজছাত্র হত্যা মামলায় পলাতক ছিল। এরপর তাকে ব্যাপক মারধর করা হয়। খবর পেয়ে একাধিক বার পিবিআইয়ের বাগেরহাট অফিসে যোগাযোগ করে ছেলে সঙ্গে দেখা করার চেষ্টা করেও তারা ব্যর্থ হন। পরে সোমবার সন্ধ্যায় হাসপাতালে ছেলের মৃতদেহ পড়ে আছে লোকজনের কাছে এমন খবর পেয়ে তারা হাসপাতালে ছুটে আসেন।

এ ব্যাপারে বাগেরহাট পিবিআইয়ের পুলিশ সুপার মো. জাহিদুর রহমান কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

গত বছরের ১৮ অক্টোবর বাগেরহাট সদর উপজেলার খানজাহান আলী মাজার এলাকায় ছুরিকাঘাতে তালিম মল্লিক (১৮) নামের এক কলেজ ছাত্র নিহত হয়। তালিম মল্লিক বাগেরহাট সদর উপজেলার সিংড়াই গ্রামের ইয়াছিন মল্লিকের ছেলে এবং সরকারি পিসি কলেজের একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী। সে স্থানীয় ছাত্রলীগের কর্মী ছিল। এই হত্যা মামলার প্রধান আসামি ছিল রাজা ফকির।

 

অর্থসূচক/এএইচআর