শনিবার, অক্টোবর ৩১, ২০২০
Home App Home Page করোনা: শনাক্ত বাড়লেও সুস্থতায় স্বস্তি

করোনা: শনাক্ত বাড়লেও সুস্থতায় স্বস্তি

করোনা: শনাক্ত বাড়লেও সুস্থতায় স্বস্তি

মহামারি করোনা ভাইরাস তাণ্ডবে বিপর্যস্ত বিশ্ব। এখনো কার্যকরী কোন ভ্যাকসিন না আসায় সংক্রমণ ও মৃত্যু প্রতিদিনই বেড়ে চলছে। কিছুদিন ধরে বাংলাদেশে সংক্রমণের হার কমলেও মৃত্যুর সংখ্যা এখনো আশঙ্কাজনক। আজ রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) নতুন রোগী কিছুটা বাড়লেও মৃত্যু কমেছে। তবে বর্তমানে শনাক্তের চেয়ে সুস্থতার হার বেশি। এতে খানিকটা স্বস্তির নিঃশ্বাস মানুষের।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে এক হাজার ২৭৫ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে। আগের সাত দিনে দেশে যথাক্রমে ১১০৬, ১৩৮৩, ১০৫৪, ১৬৬৬, ১৫৫৭, ১৭০৫ ও ১৫৪৪ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে।

সর্বশেষ তথ্য অনুসারে- দেশে নভেল করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৫৯ হাজার ১৪৮ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মোট ১০ হাজার ৬৮৫টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। আর পরীক্ষাকৃত এসব নমুনার ১১ দশমিক ৯৩ শতাংশের মধ্যে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

গতকাল ১০ হাজার ৭৬৫টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত দেশে মোট ১৯ লাখ ৯ হাজার ৪৬০টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। আর মোট পরীক্ষার ১৮ দশমিক ৮১ শতাংশ পজেটিভ।

আজ রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।


একনজরে দেশের করোনার চিত্র

নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন: ১২৭৫ জন

মোট আক্রান্তের সংখ্যা: ৩৫৯১৪৮ জন

২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে: ৩২ জনের

মোট মৃত্যু হয়েছে: ৫১৬১ জনের

২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন: ১৭১৪ জন

মোট সুস্থ হয়েছেন: ২৭০৪৯১ জন


গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৩২ জন মারা গেছেন। গত ৩০ জুন দেশে সর্বোচ্চ ৬৪ জনের মৃত্যু হয়েছিল। এরপর ২৬ জুলাই ও ২৬ আগস্ট দেশে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫৪ জনের মৃত্যু হয়। এর আগে গত ১৬ জুন করোনায় মারা গিয়েছিলেন ৫৩ জন।

গত সাত দিনে করোনা ভাইরাসে মারা গেছেন যথাক্রমে ৩৬, ২১, ২৮, ৩৭, ২৮, ৪০ ও ২৬ জন।

সর্বশেষ তথ্য অনুসারে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে পাঁচ হাজার ১৬১ জনে। মোট শনাক্তকৃত রোগীর বিপরীতে মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৩ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও এক হাজার ৭১৪ জন সুস্থ হয়েছেন বলে জানানো হয়েছে। দেশে এখন পর্যন্ত করোনা থেকে মোট সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ৭০ হাজার ৪৯১ জন। মোট শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৭৫ দশমিক ৩১ শতাংশ।

অর্থসূচক/কেএসআর