শুক্রবার, অক্টোবর ৩০, ২০২০
Home App Home Page চুরি করতে এসে এসির আরামে ঘুমিয়ে পড়ল চোর!

চুরি করতে এসে এসির আরামে ঘুমিয়ে পড়ল চোর!

চুরি করতে এসে এসির আরামে ঘুমিয়ে পড়ল চোর!

কাজ করতে করতে ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়ে পড়ার নিদর্শন অনেক আছে। তার জন্য কপালে মাঝেমধ্যে জুটেছে বকাঝকা। কিন্ত কাজ করতে এসে ঘুমিয়ে পড়ার ‘শাস্তি’ জেল হাজত, শুনেছেন কখনও? এমনটাই হয়েছে ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের গোদাবরী জেলায়।

অন্ধ্র প্রদেশের গোদাবরী জেলায় এক গৃহস্থের বাড়ি চুরি করতে এসেছিল এক যুবক। গৃহস্থের ঘরে এসির মায়ায় পড়ে ঘুমিয়ে পড়ে সে। ভেবেছিল হালকা একটু ঘুমিয়ে নিয়ে মালপত্র নিয়ে চম্পট দেবে। কিন্তু কোথায় কী! এসির হাওয়ায় গৃহস্থের বিছানায় শুয়ে নাক ডেকে গোটা রাত কাবার করে দিল সে। ফলস্বরূপ পরদিন সকালে পুলিশ ডেকে চোরকে তাদের হাতে তুলে দিল গৃহস্থ।

পূর্ব গোদাবরী জেলার গোকরভম গ্রামের সম্পন্ন ব্যবসায়ী সাত্তি ভেংকট রেড্ডি। তার বাড়ির উপর বেশ কিছু দিন ধরেই নজর রেখেছিল এলাকারই যুবক সুরি বাবু (২১)। বাড়িতে কোথায় তিনি টাকা রাখেন, কখন খান ও ঘুমোতে যান, এ সবই রেইকি করেছিল বাবু। গত ১২ সেপ্টেম্বর ভোর চারটে নাগাদ রেড্ডির বাড়িতে হানা দেয়। সোজা বেডরুমে গিয়ে সেঁধিয়ে যায় সে।

খাটের পাশের টেবিলের উপরেই নগদ টাকার বান্ডিল রেখেছিলেন গৃহস্বামী। টাকা ছুঁয়ে দেখা তো দূরে থাক। ঠান্ডা হাওয়ার স্পর্শে চোরের চোখ জুড়িয়ে আসে। খাটের তলায় বিশ্রাম নিত শুয়ে পড়ে সে। আর সেটাই তার কাল হল। ঘুমের ঘোরে নাক ডাকতে শুরু করে সুরি বাবু। সেই শব্দে ঘুম ভেঙে যায় বাড়ির মালিকেরই।

তার পরই পুলিশে খবর দেন রেড্ডি। পুলিশে আসার শব্দে ঘুম কাটে বাবুর। নিজেকে বাঁচাতে ঘর ভিতর থেকে আটকে দেয় সে। শেষ অবদি পুলিশের ধমকানিতে দরজা খুলে বের হয়।

স্থানীয় থানার কনস্টেবল অর্জুন জানিয়েছেন, আদতে ছোট মিষ্টির দোকানি বাবু সম্প্রতি দেনায় জর্জরিত হয়ে চুরির মতলব ফাঁদে। কিন্তু ঠান্ডা ঘরের লোভ তার সেই পরিকল্পনা বানচাল করে দেয়।

অর্থসূচক/কেএসআর