আইপিএলে দুর্নীতি দমনে বিসিসিআইয়ের নতুন পন্থা

বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় এবং বড় ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টুর্নামেন্ট ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল)। করোনার প্রভাবে বেশ কিছু টুর্নামেন্ট বাতিল হয়ে যাওয়ায় এবারের আইপিএলে জুয়াড়িদের নজর বেশি থাকবে বলে আশঙ্কা করছে বোর্ড অফ কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই)। আর তার ওপর এবারের আসরটি হচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাতে।

সব মিলিয়ে এদিক থেকে বেশ সতর্ক রয়েছে বিসিসিআই। আর জুয়াড়িদের প্রভাব ঠেকাতে এবং দুর্নীতি রোধে নতুন এক পদক্ষেপ নিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থাটি। স্পোর্টসরাডার নামক একটি সংস্থাকে দুর্নীতি দমন করতে দায়িত্ব দিয়েছে বোর্ড। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাতে জানা গেছে- সংস্থাটির বেশ সুনাম রয়েছে দুর্নীতিবিরোধী কাজে। বোর্ডের দুর্নীতিদমন বিভাগের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করবে সংস্থাটি।

বিসিসিআইয়ের এক সূত্র টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে জানান, ‘স্পোর্টসরাডার আইপিএলের ৫৪টি ম্যাচে জুয়াড়িদের বাজি ধরার প্রবণতা সম্পর্কে আমাদের ধারণা দেবে এবং সাহায্য করবে ম্যাচের ঝুঁকি মূল্যায়ণ করতে।’

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, সংস্থাটি ফ্রড ডিটেনশন সিস্টেমে প্রতিদিন প্রায় ৫০ লক্ষ তথ্য খতিয়ে দেখা হবে। সেই সঙ্গে টুর্নামেন্ট চলাকালীন, টুর্নামেন্ট সম্পর্কিত প্রায় ৬০০ লেনদেনের উপর নজর রাখা হবে। পাশাপাশি সম্ভাব্য বুকি এবং ফ্যান্টাসি গেম সংস্থাগুলির উপরও নজরদারি চালাবে সংস্থাটি।

স্পোর্টসরাডার সংস্থাটি একটি আন্তর্জাতিক সংস্থা। ২০ বছর পুরানো এই প্রতিষ্ঠানটি ৮০টি দেশে ১০০০ এর বেশি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সাফল্যের সঙ্গে কাজ করে এসেছে। এসব প্রতিষ্ঠানের ভেতর এনবিএ, এনএফএল, এনএইচএল, এমএলবি, এনএসসিএআর, ফিফা এবং উয়েফা অন্যতম।

অর্থসূচক/এএইচআর