মাহি-স্পর্শিয়াকে নিয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে শাকিব

মহামারি করোনার প্রভাবে স্থবিরতা কাটিয়ে ‘নিউ নরমাল’ জীবনে ফিরছে পৃথিবী। আশঙ্কা থাকলেও জীবনের তাগিদে কাজে ফিরছে মানুষ। শোবিজ অঙ্গনেও নয় ব্যতিক্রম। ২২৪ দিন পর শুটিংয়ে ফিরেছেন ঢাকাই সিনেমার সবচেয়ে বড় তারকা সুপারস্টার শাকিব খান। অনন্য মামুনের পরিচালনায় ‘নবাব এলএলবি’ নামের ছবির মধ্য দিয়ে সম্প্রতি রাজধানীর বিভিন্ন লোকেশনে দাঁড়িয়েছেন ক্যামেরার সামনে।

গতকাল ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে ‘নবাব এলএলবি’র শুটিং চলছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে। শুটিংয়ে অংশ নেন শাকিব খান, মাহি, স্পর্শিয়া’সহ আরো অনেকেই।

বিষয়টি নিশ্চিত করে পরিচালক অনন্য মামুন বলেন, আমরা পুরোদমে কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। পুরো টিমের সবাই খুব সাপোর্ট দিচ্ছেন। এজন্য কাজ হচ্ছে বেশ গুছিয়ে। কাল থেকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে শুট করছি। এখানকার পরিবেশও চমৎকার। কাজ করতে এসে খুব ভালো অভিজ্ঞতা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, বিশেষভাবে বলতে হয় আমার ছবির শিল্পীরা খুবই পরিশ্রম করছেন ছবিটির জন্য। শাকিব খান নিজে শুটিং স্পটে চলে আসছেন নির্ধারিত সময়ের আগেই। তিনি কাজ করছেন একটানা। সেটের প্রয়োজন অনুসারে তিনি কাজ করছেন। সিনেমাটা দ্রুত শেষ করার তাগিদ দিচ্ছেন। এটা বাড়তি প্রেরণা দিচ্ছে।

এদিকে শাকিব খান বলেন,  আমি সবসময়ই কাজ করি দেশের সাধারণ মানুষদের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য। চেষ্টা করি বাংলাদেশের চলচ্চিত্রকে বিশ্ব দরবারে পৌঁছে দেয়ার জন্য। শত প্রতিকূলতার পরেও আমার এই প্রচেষ্টা থেমে নেই। এরমধ্যে বৈশ্বিক করোনার কারণে আজ আমার ইন্ডাস্ট্রি ও দেশের সাধারণ মানুষ ভালো নেই। খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, চিকিৎসা, শিক্ষার পাশাপাশি দৈনন্দিন জীবনে বিনোদন সংস্কৃতিও ওতোপ্রোতভাবে জড়িত। এছাড়া এ মাধ্যম অনেকের জীবিকা নির্বাহের একমাত্র উৎস। মানুষগুলো এমন দুঃসময়েও ভালোবাসার টানে পড়ে আছেন এই ইন্ডাস্ট্রিতে। আমি তাদের জন্যও কাজ করে যাচ্ছি। আমার এই প্রচেষ্টা সবসময় অব্যাহত থাকবে।

প্রসঙ্গত, শাকিব ও মাহি ‘নবাব এলএলবি’ ছবির মধ্য দিয়ে দীর্ঘ ৭ বছর পর আবারো জুটি বাঁধলেন। এর আগে ২০১৩ সালে জাজ মাল্টিমিডিয়ার প্রযোজনায় পিএ কাজল পরিচালিত ‘ভালোবাসা আজকাল’ সিনেমায় প্রথমবার একসঙ্গে দেখা গিয়েছিলো শাকিব-মাহিকে। দীর্ঘদিন পর আবারও এই জুটিকে পেয়ে উচ্ছ্বসিত দুই তারকার ভক্তরা। তারা আশা করছেন ছবিটি সুপারহিট হবে বলে।

অর্থসূচক/এমএস