জনগণের অর্থ ব্যবহারে আরও সতর্ক হতে হবে: পরিকল্পনামন্ত্রী

জনগণের সম্পদ আমরা কিভাবে ব্যবহার করছি তা তারা গভীর নজরে রেখেছে। তাই টাকা ব্যবহারে আরও সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

তিনি বলেন, প্রকল্পের নামে সরকারি কর্মকর্তারা অহেতুক অর্থের অপচয় করতে পারবেন না। স্বচ্ছতার মাধ্যমে প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে হবে। আমরা সঠিকভাবে কাজ করে সোনার বাংলা গড়বো। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণ করবো।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আজ শনিবার (১৫ আগস্ট) নগরীর আগারগাঁও বিবিএস মিলনায়তনে পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা ও বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো- এর আয়োজন করে।

বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিচারণ করে এমএ মান্নান বলেন, বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে সরাসরি দুই বার দেখা করেছি। তিনি আমাদের চাকরি দিয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে ২-৩ মিনিটের কথা আমার জীবনে বড় অভিজ্ঞতা যা কখনও ভুলতে পারবো না। বঙ্গবন্ধু মানে বিরাট ব্যপার, তিনি কোটি কোটি মানুষের নেতা। বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে দেখা করে কথা বলা মানে বিশাল ব্যাপার। যখন দেখা করেছিলাম তখন তোফায়েল সাহেব (সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী) ছিলেন।

তিনি বলেন, আমার মনে প্রাণে বঙ্গবন্ধু। চিন্তা ও ধ্যান ধারনায় বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করি। যখন থেকে বুঝতে শিখেছি তখন থেকেই বঙ্গবন্ধুকে অনুসরণ ও অনুকরণ করি। বঙ্গবন্ধু কোমল হৃদয়ের মানুষ ছিলেন, তারপরও উনাকে দূর থেকে দেখলেই বুক কাঁপতো।

পরিকল্পনামন্ত্রী আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু এদেশকে একটি সংগঠিত, পরিকল্পিত ও ন্যায়ানুগ রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তুলতে চেয়েছিলেন। তিনি ও তার সতীর্থরা বুঝতে পেরেছিলেন এ দুর্দশার প্রধান কারণ ঔপনিবেশিক শাসনের লুণ্ঠন। সেটি রুখতে হবে এবং অর্থনৈতিক মুক্তি আনতে হবে।

মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু ও তখনকার বাঙালিরা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন যে আমাদের মাটি, পানি আমাদের সব সম্পদ ফিরিয়ে আনতে হবে। তাহলেই কেবল আমরা অর্থনৈতিক অর্জন করতে পারবো। এজন্য স্বাধীনতার পরপরই বঙ্গবন্ধু ও তার সহযোদ্ধারা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন ব্যাপক অর্থনৈতিক কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন এবং তা বাস্তবায়ন করার।

পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর মহাপরিচালক মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মাহমুদা আকতার প্রমুখ।

অর্থসূচক/কেএসআর