পুকুর চুরির অভিযোগ ওসি প্রদীপের বিরুদ্ধে

পুলিশের গুলিতে নিহত মেজর (অব.) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খানের মৃতুর পর নানা অপকর্মের ফিরিস্তি বেরিয়ে আসছে টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশের বিরুদ্ধে। এমনকি শুধু প্রবাদ নয়, বাস্তবেই পুকুর চুরির অভিযোগ আছে ওসি প্রদীপের বিরুদ্ধে। চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে নিজ গ্রামে প্রভাব খাটিয়ে দেড় কোটি টাকার পুকুর দখল করেছেন তিনি। তার স্ত্রীর নামেও রয়েছে বেশকটি পুকুর।

সবুজে ঘেরা বিশাল পুকুর। আছে সান বাঁধানো আকর্ষণীয় ঘাটও। টেকনাফের সাবেক ওসি প্রদীপের গ্রামের বাড়ি বোয়ালখালীর কুনজরি গ্রামে দুই একরের পুকুরটির বর্তমান বাজার মূল্য দেড় কোটির কাছাকাছি। অভিযোগ আছে পুকুরটির সামান্য অংশ প্রদীপের পরিবারের থাকলেও জোর করে পুরো পুকুরটাই দখল করে নিয়েছেন।

একটি বেসরকারি টেলিভিশনকে স্থানীয় একজন বলেন, একজনের কাছ থেকে কিছু অংশ কিনেছে। বাকি অংশীদারদের থেকে কিনেনি। ওরা প্রশাসনের লোক ভয়ভীতি দেখিয়ে দখল করে নিয়েছে।

আরেকজন বলেন, আমরা কাগজপত্র বের করেছি। সেটিতে অনেক ওয়ারিশ বের হবে। কিন্তু আমরা শুনছি বাংলাদেশ সরকার নাকি লিজ দিয়েছে সেখান থেকে উনি নিয়েছেন।

প্রদীপের তিন ভাই প্রশাসনে চাকরি করেন। তাই স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী। তাদের অপকর্মের বিরুদ্ধে ভয়ে মুখ খুলতে চায় না এলাকাবাসী।

স্থানীয় একজন বলেন, প্রশাসনে চাকরি করে বিধায় ভয় পেয়ে কেউ কিছু করে না। এরা নিজেরাই চারদিক দখল করে রাখছে।

বোয়ালখালী সারোয়াতলীর চেয়ারম্যান বেলান হোসেন বলেন, আমি জানি ওসি প্রদীপের বউয়ের নামে মাছ চাষ হতো এমন কয়েকটা পুকুর আছে। তবে বড় ভাই রনজিত দাশের দাবি, পুকুরটি লিজ নেয়া হয়েছে।

অর্থসূচক/কেএসআর