রামমন্দির নিয়ে পাক-ভারত ‘শব্দযুদ্ধ’

flags of Pakistan and India

অযোধ্যায় বাবরি মসজিদের জায়গায় রামমন্দির নির্মাণ নিয়ে এ বার ভারতকে সরাসরি আক্রমণ করল পাকিস্তান। পাল্টা জবাব দিয়েছে ভারতও। পাল্টা জবাব ভারত বলেছে, পাকিস্তানের বক্তব্য সাম্প্রদায়িক। পাকিস্তান বলেছিল, অযোধ্যায় রামমন্দির নির্মাণ অনুচিত। ভারতের সুপ্রিম কোর্টের রায়কেও তারা ‘ত্রুটিপূর্ণ’ বলে বিবৃতি দিয়েছিল।

গত বুধবার অযোধ্যায় রামমন্দিরের ভূমিপুজোর অনুষ্ঠান হয়। রুপোর ইট বসিয়ে তার সূচনা করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ওই দিনই পাকিস্তান অযোধ্যায় রামমন্দির তৈরি নিয়ে বিবৃতি প্রকাশ করে। তাতে বলা হয়, যে প্রক্রিয়ায় ভারত রামমন্দির তৈরি করছে তা অন্যায়। বস্তুত, ভারতের সুপ্রিম কোর্টের রায়কেও কার্যত চ্যালেঞ্জ জানানো হয় ওই বিবৃতিতে। বলা হয়, অযোধ্যা মামলায় ভারতের সুপ্রিম কোর্টের রায় ‘ত্রুটিপূর্ণ’।

পাকিস্তানের এই মন্তব্যের কড়া জবাব দিয়েছে ভারত। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেছেন, ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক গলানোর কোনও অধিকার নেই পাকিস্তানের। পাক বিবৃতিকে সাম্প্রদায়িক এবং উস্কানিমূলক বলে বর্ণনা করা হয়েছে। একই সঙ্গে অনুরাগ বলেছেন, ‘পাকিস্তানের কাছ থেকে অবশ্য এমন মন্তব্যই প্রত্যাশিত। ওরা অন্য দেশে জঙ্গি কার্যকলাপে মদত দেয়। নিজের দেশে সংখ্যালঘুদের অধিকার ছিনিয়ে নেয়। তবে যে মন্তব্য করা হয়েছে, তা নিন্দাজনক।’

১৯৯২ সাল থেকে অযোধ্যা খবরের শিরোনামে। বাবরি মসজিদের বিতর্কিত কাঠামো নিয়ে বহু জলঘোলা হয়েছে। বাবরি মসজিদ ভাঙার চেষ্টা হয়েছে। তারপর দীর্ঘদিন তা আদালতে বিচারাধীন ছিল। প্রথমে এলাহাবাদ হাইকোর্ট এ বিষয়ে রায় দান করে। পরে মামলা গড়ায় ভারতের সুপ্রিম কোর্টে। ২০১৯ সালে সুপ্রিম কোর্ট বিতর্কিত অঞ্চলে রামমন্দির বানানোর অনুমতি দেয়।

গত এক মাসে একাধিক বার ভারত এবং পাকিস্তানের মধ্যে শব্দযুদ্ধ হয়েছে। পাক প্রধানমন্ত্রী দেশের মানচিত্রে কাশ্মীর এবং গুজরাটের কিছু অংশ সংযোজন করায় ভারত তার কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছিল। পাকিস্তানে একটি গুরুদ্বারকে মসজিদ বানানোর বিরোধিতা করে বিবৃতি প্রকাশ করেছিল ভারত। পরে কাশ্মীরে ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের এক বছর পূর্তি উপলক্ষেও দুই দেশের মধ্যে কড়া মন্তব্য চালাচালি হয়। বস্তুত, প্রথম থেকেই পাকিস্তান এর বিরোধিতা করছে। জাতিসংঘেও বার বার বিষয়টি উত্থাপন করার চেষ্টা চালিয়েছে। যেখানে চীনকে পাশে পেয়েছে তারা। তবে রামমন্দির নির্মাণ প্রসঙ্গে এই প্রথম পাকিস্তান সরকারিভাবে কোনও মন্তব্য করল। সূত্র: ডিডব্লিউ

অর্থসূচক/এএইচআর