এবারের আইপিএল হবে ইতিহাসের সেরা

মহামারি করোনার প্রভাবে শুরু হবার আগেই দুই দফায় পিছিয়ে সাময়িক স্থগিত রাখা হয়েছিল ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ১৩তম আসরটি। ভারতের করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় এই আসরটি বসতে যাচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাতে।

মরুর এই দেশটিতে করোনা সংক্রমণ কম হলেও একেবারেই ঝুঁকিহীন কিন্তু না। আর যেহেতু আইপিএল একটি বড় আসর এবং বিভিন্ন দেশ থেকে ক্রিকেটাররা আসবেন, ফলে স্বভাবতই ঝুঁকি কিছুটা বেড়েই যাবে। এমন পরিস্থিতিতে একজন কোভিড-১৯ রোগী কাল হয়ে দাঁড়াতে পারে পুরো আইপিএলের জন্য। এমনটাই মন্তব্য করেছেন টুর্নামেন্টটির অন্যতম ফ্র্যাঞ্চাইজি কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের মালিক নেস ওয়াড়িয়া।

সম্প্রতি বার্তা সংস্থা পিটিআইকে নেস বলেন, ‘অনেক উড়ো কথাই শোনা যাচ্ছে। আমি মনে করি এগুলো নিতান্তই হাস্যকর। মূল বিষয় হলো, আমরা দল মালিকরা জানি যে আইপিএল হচ্ছে। খেলোয়াড় এবং সংশ্লিষ্ট সকলের স্বাস্থ্য নিরাপত্তার বিষয়ে বিন্দুমাত্র ছাড় দেয়া হবে না। একজনও করোনা আক্রান্ত হলে সেটিই আইপিএলের কাল হয়ে দাঁড়াবে।’

ভারত-চীন সীমান্ত সংঘাতের জের ধরে আইপিএলের টাইটেল স্পন্সরের চুক্তি থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত সরে এসেছে চীনা মোবাইল কোম্পানি ভিভো। ফলে বর্তমানে কোনো টাইটেল স্পন্সর নেই আইপিএলের। কিন্তু বিষয়টিতে মোটেও বিচলিত হচ্ছেন না কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের এই মালিক।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি জানি না টাইটেল স্পন্সরশিপের ব্যাপারে কী করেছে বিসিসিআই। সব দল মালিকদের মধ্যে সভা হয়েছে এবং সবাই মিলে একটি সফল আইপিএল আয়োজনের ব্যাপারে ঐক্যবদ্ধ। আমাদের এক্ষেত্রে বিসিসিআইয়ের সমর্থন প্রয়োজন এবং শীঘ্রই আবার সভা ডাকা হবে। সব স্পন্সররাই চেষ্টা করবে নিজেদের নাম জুড়ে দিতে। আমি নিজের নাম বদলে রাখব যদি এবারের আইপিএল সবচেয়ে বেশি দেখা আসর না হয়। আমার কথা লিখে রাখুন, এবারের আইপিএল হবে ইতিহাসের সেরা। স্পন্সররা এর অংশ না হলে বোকামিই করবে।’

অর্থসূচক/এএইচআর