করোনাভাইরাসঃ অক্টোবরের মধ্যে আসছে রাশিয়ার টিকা
সোমবার, ৩রা আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

করোনাভাইরাসঃ অক্টোবরের মধ্যে আসছে রাশিয়ার টিকা

নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) ঠেকাতে একটি টিকার (Vaccine) পরীক্ষামূলক প্রয়োগে গত সপ্তাহে সাফল্যের কথা জানিয়েছিল রাশিয়া। এবার দেশটি ঘোষণা দিয়েছে,  মাসখানেকের মধ্যে এই টিকা ব্যবহারের আনুষ্ঠানিক অনুমতি দেওয়া হবে। এর পর পরই শুরু হবে উৎপাদন। আর অক্টোবরে ব্যাপক পরিসরে টিকা উৎপাদন ও সর্বধারণের ব্যবহারের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে। ক্লিনিক্যাল ট্র্যায়ালে সাফল্য যাওয়ায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

খবর রয়টার্স, বিবিসি ও বিজনেস ইনসাইডারের

রাশিয়ার বার্তা সংস্থা ইন্টারফ্যাক্সের বরাতে রয়টার্স জানিয়েছে, চলতি মাসেই রাশিয়ার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এই ভ্যাকসিনের অনুমোদন দেবে।

দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী মিখাইল মুরাসখো ইন্টারফ্যাক্সকে জানিয়েছেন, রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর সরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান গ্যামালিয়া ইনস্টিটিউ সফলভাবে করোনার টিকার ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শেষ করেছে। নিবন্ধনের জন্য আবেদনপত্র জমা দেওয়ার আনুষ্ঠানিক প্রস্তুতি চলছে।

বিবিসির সংবাদে বলা হয়েছে, রাশিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, প্রথমে চিকিৎসক ও শিক্ষকদের এই ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। বার্তা সংস্থা ইন্টারফ্যাক্সকে তিনি বলেন, মস্কোর গামালেয়া ইনস্টিটিউটে তৈরি এই ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শেষ হয়েছে। এখন অনুমোদন পাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তৈরির কাজ চলছে। রুশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘অক্টোবরেই আমরা বিস্তৃত পর্যায়ে ভ্যাকসিন প্রয়োগের প্রস্তুতি নিচ্ছি।’

অনেক বিশেষজ্ঞ অবশ্য ভ্যাকসিন নিয়ে রাশিয়ার দ্রুতগতির এই উদ্যোগ নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন। তাদের মতে, টিকার মতো সংবেদনশীল বিষয় নিয়ে বেশি দ্রুত এগুনোর সুযোগ নেই। তাতে স্বাস্থ্যগত জটিলতা তৈরির আশংকা থেকে যায়।

যুক্তরাষ্ট্রের সংক্রামক ব্যাধি বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফাউসি আশা প্রকাশ করেন, রাশিয়া ও চীন মানবদেহে প্রয়োগের আগে ‘ভ্যাকসিন সত্যিকার অর্থেই পরীক্ষা’ করবে। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি ভ্যাকসিন ‘নিরাপদ ও কার্যকর’ হবে। চলতি বছরের শেষ নাগাদ এই ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে। ফাউসি বলেন, ‘আমি এটা বিশ্বাস করি না যে ভ্যাকসিন তৈরির দিক থেকে কোনো দেশ আমাদের চেয়ে এগিয়ে আছে। কিংবা এই ভ্যাকসিনের জন্য অন্য কোনো দেশের ওপর আমাদের নির্ভর করতে হবে।’

উল্লেখ, রাশিয়া বিশ্বে করোনায় বিধ্বস্ত দেশগুলোর সামনের সারিতে অবস্থান করছে। আক্রান্তের সংখ্যার দিক থেকে দেশটির অবস্থান চতুর্থ। এ অবস্থায় করোনা মোকাবেলায় নিজস্ব একটি টিকার জন্যে দেশটি অনেক তোড়জোর করছে। পাশাপাশি বিশ্ব জুড়ে চলমান এই অতিমারীতে সবার আগে টিকা নিয়ে আসার কৃতিত্ব অর্জনের রেসে আছে দেশটি।

বিশ্বে এখন পর্যন্ত মোটামুটি সফল ২০টি টিকার কথা শোনা যায়। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও চীনের একটি করে টিকা অনেক দূর এগিয়ে আছে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ