করোনায় কর্মকর্তাদের জন্য প্রাইম ব্যাংকের স্বাস্থ্য জিজ্ঞাসা অনুষ্ঠান

প্রাইম ব্যাংক এর হেলথ টক এ কর্মকর্তারা পেল কোভিড-১৯ সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ সচেতনতা তথ্য

কর্মকর্তাদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তায় হেলথ টক এর আয়োজন করেছে প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড। করোনা পরিস্থিতিতে বিশেষ করে ঈদ-উল-আযহার সময় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিষয়ে অনুষ্ঠানে আলোচনা করা হয়।

দেশের বিখ্যাত মহামারী রোগ বিশেষজ্ঞ ও থাইরোকেয়ার বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট ডা. আনোয়ারুল ইকবাল এমবিবিএস (ঢাকা), এমএসসি. (সুইডেন) করোনাভাইরাস ও অন্যান্য রোগ প্রতিরোধ বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দেন। ডা. ইকবাল ইতিপূর্বে আইসিডিডিআর,বি তে এপিডেমিক কন্ট্রোল এন্ড প্রিপেয়ার্ডনেস প্রোগ্রামের ইউনিট হেড হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

২৭ জুলাই, ২০২০ অনুষ্ঠিত দুই ঘন্টার অনুষ্ঠানে ডা. ইকবাল ঈদ-উল-আযহার সময় করোনাভাইরাস মোকাবিলার বিষয়ে পরামর্শ দেন। তিনি স্বাস্থ্যবিধি, লাইফস্টাইল ও স্বাস্থ্য নিরাপত্তার বিষয়ে পারমর্শ দেন এবং কোভিড-১৯ সম্পর্কে অনেক ভ্রান্ত ধারণা দূর করে দেন।

তিনি কোভিড-১৯ এর সম্পর্কে সচেতনতা, প্রতিরোধ ও চিকিৎসার বিষয়ে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করেন। নিরাপত্তার সাথে কুরবানীর পশু ব্যবস্থাপনা, মাংস প্রসেসিং ও বিতরণ নিয়ে তিনি কথা বলেন। তিনি গরুর হাটে না যাওয়ার পরামর্শ দেন, কেননা সেখানে ভাইরাস সংক্রমণের ব্যাপক সম্ভাবনা আছে। এর পরিবর্তে তিনি অনলাইনে কুরবানীর পশু ক্রয়ের পরামর্শ দেন।

বাইরে অবস্থানের সময় মাস্ক পরা, বাসা ও অফিস নিয়মিত বিরতিতে জীবানুনাশক করা, ব্যাংকার ও চাকুরীজীবীদের বিশেষ স্বাস্থ্য নিরাপত্তা, বয়োজ্যেষ্ঠ ও শিশুদের বিশেষ যতœ, সুস্থ থাকার জন্য নিয়মিত ইনডোর ব্যায়াম, মানসিক স্বাস্থ্যের প্রতি খেয়াল রাখা, বাসায় রান্না করা খাবার খাওয়া এবং গৃহপালিত পশু ব্যবস্থাপনা নিয়ে তিনি আলোচনা করেন।

এটি ছিল ইন্টারঅ্যাকটিভ সেশন যেখানে কর্মকর্তা ও স্টেকহোল্ডারবৃন্দ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অসংখ্য প্রশ্ন করেন যার প্রত্যেকটির উত্তর বিস্তারিতভাবে দেয়া হয়। ব্যাংকটি মনে করে, এ ধরনের অভিজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণের মাধ্যমে সবাই নিজেদের ও পরিবারের সদস্যদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারবে।

প্রাইম ব্যাংক কর্মকর্তাদের স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তায় সবোর্চ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে থাকে। কোভিড-১৯ শুরু হবার সাথে সাথে প্রাইম ব্যাংক বড় পরিসরে প্রতিরোধ ও নিরাপত্তা কার্যক্রম শুরু করে। প্রথমেই সতর্কতামূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করায় ও যথাযথ প্রস্তুতি নেয়ায় সরকারের সাধারণ ছুটির সময়ও নিরবচ্ছিন্ন গ্রাহকসেবা প্রদান করা সম্ভব হয়েছে। সংকটকালে ব্যাংকের সিনিয়র ম্যানেজেমেন্টের এই দূরদৃষ্টি প্রদর্শণের জন্য প্রাইম ব্যাংক আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে সম্মানজনক স্বীকৃতি লাভ করেছে। সম্প্রতি অর্জন করেছে বিশ্বখ্যাত ইউরোমানি’র অত্যন্ত মর্যাদাপূর্ণ “এক্সিলেন্স ইন লিডারশিপ ইন এশিয়া ২০২০” পুরস্কার।

এ হেলথ টক সম্পর্কে প্রাইম ব্যাংক এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রাহেল আহমেদ বলেন, “কর্মকর্তাদের সুস্বাস্থ্য ও নিরাপত্তায় প্রাইম ব্যাংক সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে থাকে। এজন্যই আমরা এই মহামারীর শুরু থেকেই স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তার জন্য ব্যাপক কার্যক্রম গ্রহণ করি। আমরা ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন ও আইইডিসিআর এর বিধি অনুযায়ী দেশব্যাপী সকল অফিসে পরিচ্ছন্নতা ও জীবাণুনাশ কার্যক্রম, নিরাপত্তা সামগ্রী বিতরণ ও কঠোর স্বাস্থ্যবিধি বাস্তবায়ন করছি। কর্মকর্তাদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তার স্বার্থে প্রত্যেকটি শাখায় নূন্যতম কর্মীর উপস্থিতিতে ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। তবে গ্রাহকসেবায় কোন ব্যাঘাত ঘটতে দেয়া হয়নি। আমরা সহকর্মীদের বাসা কাজ করতে উৎসাহিত করেছি এবং কর্মতৎপরতা বজায় রাখার জন্য প্রয়োজনীয় যাবতীয় সুবিধার ব্যবস্থা করেছি। আমরা সম্মিলিতভাবে এই সংকটের মোকাবিলা করবো। আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি একতার শক্তিই এই ক্রান্তিকাল অতিক্রম করতে আমাদের সাহায্য করবে ও আমাদের আরও শক্তিশালী করবে।”
হেলথ টকটি ব্যাংকের ফেইসবুক পেইজ থেকে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়। করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য ভার্চুয়াল মিডিয়ার সাহায্যে অনুষ্ঠানটি আয়োজন করা হয়।