রাজশাহীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ শিশু ধর্ষণ মামলার আসামি নিহত

রাজশাহীর পুঠিয়ায় র‌্যাবের সঙ্গে গুলিবিনিময়ের ঘটনায় চাঞ্চল্যকর শিশু ধর্ষণ মামলার আসামি এখলাস আলি (৩২) নিহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র ও মাদক উদ্ধারের দাবি করেছে র‌্যাব।

আজ মঙ্গলবার (২১ জুলাই) ভোরে পুঠিয়ার পীরগাছা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত এখলাস পুঠিয়া উপজেলার গণ্ডগোহালী গ্রামের কাশেমের ছেলে।

র‌্যাব জানায়, এখলাস মাদক ব্যবসায়ী ছিলেন। মাদকবিরোধী অভিযান চালাতে গিয়ে মঙ্গলবার ভোরে পীরগাছা গ্রামে র‌্যাব তাকে আটক করার চেষ্টা করলে তিনি গুলি চালান। এসময় আত্মরক্ষার্থে র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালালে এখলাস গুলিবিদ্ধ হন। পরে তাকে পুঠিয়া উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। তার কাছ থেকে একটি পিস্তল, দুই রাউন্ড গুলি, একটি ওয়ান শুটারগান ও ৪৮০ পিস ইয়াবা পাওয়া গেছে।

পুঠিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল ইসলাম জানান, এখলাসের বিরুদ্ধে শালিকাকে ধর্ষণ ও আত্মহত্যায় প্ররোচণার অভিযোগ রয়েছে। গত ২৫ জানুয়ারি দুলাভাই এখলাসের বাড়িতে বেড়াতে যায় পুঠিয়া বাজারের বাসিন্দা সেলিম উদ্দীনের মেয়ে ইভা আক্তার (১২) । ওই রাতেইে এখলাস তাকে ধর্ষণ করে। এ নিয়ে গ্রামে শালিশও হয়। এর দুইদিন পর গত ৯ এপ্রিল ইভা গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করে। এ ঘটনায় ইভার বাবা বাদী হয়ে মামলা করেন।

তবে এখলাসের মামা জিন্নাত আলী দাবি করেছেন, তার ভাগ্নে এখলাসকে র‌্যাব গত ৪ জুলাই ঢাকার ফতুল্লা থেকে আটক করে। তিনি মাদক ব্যবসায়ী ছিলেন না, রিকশা চালাতেন। তবে তার বিরুদ্ধে শালিকাকে ধর্ষণ ও আত্মহত্যায় প্ররোচণার মামলা ছিল।

অর্থসূচক/কেএসআর