কোলেস্টেরলের ওষুধে কমছে করোনার মারণ ক্ষমতা, দাবি গবেষকদের
মঙ্গলবার, ১১ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

কোলেস্টেরলের ওষুধে কমছে করোনার মারণ ক্ষমতা, দাবি গবেষকদের

গত ছয় মাস ধরে সারাবিশ্বে করোনা তাণ্ডব চালাচ্ছে। ইতোমধ্যে কেড়ে নিয়েছে বহু প্রাণ। বিজ্ঞানীরা নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন এই মহামারি প্রতিরোধে। এখনো করোনা প্রতিরোধে কার্যকরী ওষুধ বা টিকা আবিষ্কার সম্ভব হয়নি। তবে হিব্রু বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা দাবি করছেন, প্রাণঘাতী এই ভাইরাস থেকে বাঁচার ওষুধ আমাদের হাতেই রয়েছে।তাদের দাবি, কোলেস্টেরল কমানোর ওষুধ ফেনোফাইব্রেট প্রয়োগে করোনার মারণ ক্ষমতা ক্রমশ কমছে। এই ওষুধ প্রয়োগের ফলে করোনা ভাইরাস সামান্য জ্বরে পরিণত হচ্ছে। যা সহজে সেরে যাচ্ছে।

হিব্রু বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ইয়াকোভ নাহমিয়াস দাবি করেছেন, ক্লিনিক্যাল স্টাডিজের মাধ্যমে এই ফল প্রকাশ করা হয়েছে। ওষুধের একটি নির্দিষ্ট কোর্স সম্পন্ন করলে আক্রান্তদের শরীরে করোনা ভাইরাসের ঝুঁকি অনেকটাই কমে যাচ্ছে। কমছে এই ভাইরাসের মারণ ক্ষমতা। এই ওষুধ করোনার সংক্রমণকে সাধারণ ঠান্ড লাগার সমস্যায় পরিণত করছে।

নতুন এই গবেষণায় দেখা গেছে, কোভিড-১৯ ভাইরাসটি ফুসফুসের ক্ষতি করছে। যার ফলে ফুসফুস স্বাভাবিকভাবে কাজ করতে পারছে না। সেই জন্যই যাদের ডায়েবিটিস রয়েছে বা কোলেস্টেরল রয়েছে, তাদের শরীরে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি। আর তাদেরই এই ওষুধ প্রয়োগ করলে মৃত্যুর ঝুঁকি কমছে।

গবেষকরা বলেছেন, ভাইরাস নিজেরা বংশবিস্তার না করতে পারলেও এরা মানুষের শরীরে কোষের মাধ্যমে নিজের বংশের বিস্তার করে। করোনা ভাইরাস শরীরে মেটাবলিজম নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। যদি এর বিরুদ্ধে লড়তে হয়, তাহলে একে উৎস থেকে বিচ্ছিন্ন করতে হবে। সেই কাজটাই এই ওষুধ প্রয়োগে করা সম্ভব হবে বলে দাবি তাদের।

সূত্র: ইয়াহু নিউজ

অর্থসূচক/এসএস/কেএসআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ