আগস্টেই আসবে করোনা ভ্যাকসিন: দাবি রাশিয়ার বিজ্ঞানীদের
শুক্রবার, ৭ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

করোনা ভ্যাকসিন আগস্টেই বাজারে আনছে রাশিয়া

করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধকের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের সবকটি ধাপ ইতিমধ্যেই শেষ হয়েছে বলে দাবি করেছেন রাশিয়ার সেচেনভ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা। আগস্ট মাসের মাঝামাঝি বিশ্বের প্রথম করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন তারা লঞ্চ করতে পারবেন বলে আশাবাদী রাশিয়ান বিজ্ঞানীদের।

তাদের দাবি অনুযায়ী বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় ভ্যাকসিন তৈরির ক্ষেত্রে অগ্রণী স্থানে রয়েছে রাশিয়া৷ রাশিয়া ছাড়া এখন পর্যন্ত কোনো দেশের গবেষকরাই করোনা ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শেষ করার দাবি করতে পারেননি।

সেচেনভ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল প্যারাসাইটোলজির ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ভেক্টর বোর্ন ডিজিজ বিভাগের ডিরেক্টর অ্যালেকজান্ডার লুকাসেভ জানিয়েছেন, এই ভ্যাকসিন সম্পূর্ণ নিরাপদ। এই বিষয়ে কোন সংশয় নেই৷ বাজারে অন্যান্য যে প্রতিষেধকগুলো রয়েছে, সেগুরোর মতই সমস্ত মানদণ্ডে উত্তীর্ণ হয়েছে এই প্রতিষেধক৷

অ্যালেকজান্ডার আরো জানিয়েছেন, ১২ থেকে ১৪ আগস্টের মধ্যেই ভ্যাকসিনটি সাধারণ মানুষের শরীরে প্রয়োগ করা যাবে বলে তিনি আশাবাদী৷ এছাড়া আগামী সেপ্টেম্বর মাস থেকে ওষুধ সংস্থাগুলো রাশিয়ার তৈরি এই ভ্যাকসিনটির বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু করতে পারবে৷

প্রথম দফায় ১৮জন এবং দ্বিতীয় দফায় ২৩জন স্বেচ্ছাসেবকের উপরে এই ভ্যাকসিনটি প্রয়োগ করা হয়েছিল৷ ১৮ থেকে ৬৫ বছর বয়সি ওই স্বেচ্ছাসেবকদের ২৮ দিনের জন্য আইসোলেশনে রাখা হয়েছে৷ তাদের ২০ জুলাইয়ের মধ্যে ছেড়ে দেওয়া হবে৷ এবং আগামী ৬ মাস তাদের উপরে নজর রাখা হবে।

সেচেনভ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান গবেষক এলেনা স্মোলিরাচুক জানিয়েছেন, ভ্যাকসিন প্রয়োগের পর কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবকের সামান্য জ্বর এবং মাথাব্যথার মতো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছিল৷ কিন্তু একদিনের মধ্যেই তা কমে যায়৷

তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তালিকা অনুযায়ী, এখনও রাশিয়ার তৈরি এই ভ্যাকসিনটি ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের প্রথম পর্যায়েই রয়েছে৷ বাণিজ্যিক উৎপাদনের জন্য যে কোন ভ্যাকসিনকেই ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের তিনটি ধাপ সম্পূর্ণ করতে হয়।

সূত্র:মস্কো টাইমস

অর্থসূচক/এসএস/এমএস

এই বিভাগের আরো সংবাদ