এসএমই ঋণ শ্রেণীকরণের শর্ত শিথিল

handicraftsদেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প (এসএমই)খাতকে এগিয়ে নিতে ঋণ শ্রেনীকরণের ক্ষেত্রে শিথিলতার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।এসএমই খাতে প্রদত্ত ঋণ পুনঃতফসিলের ক্ষেত্রে ডাউন পেমেন্ট গ্রহণের বিষয়টি ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে বিবেচনা করা,অশ্রেণীকৃত ঋণ (স্ট্যান্ডার্ড ও এসএমএ) পুনর্গঠনের মেয়াদকাল যৌক্তিক পর্যায়ে নির্ধারণ,প্রয়োজনে ঋণ ব্লক হিসাবে স্থানান্তর এবং সুদ হার নির্ধারণের ক্ষেত্রে নমনীয় দৃষ্টিভঙ্গি প্রদর্শন করার জন্য তফসিলি ব্যাংকগুলোকে বাংলদেশ ব্যাংক হতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

বুধবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত এক প্রজ্ঞাপন জারি করে সকল তফসিলি ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীর কাছে পাঠানো হয়েছে।এ সুবিধা ২০১৪ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত কার্যকর থাকবে বলেও প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে,দেশে বিরাজমান অস্থিতিশীল পরিস্থিতির কারণে ব্যবসা-বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক কর্মকান্ডে বিরূপ প্রভাব পড়ছে।এতে স্বাভাবিক ব্যবসায়িক কর্মকান্ড ব্যাহত হচ্ছে।বিশেষতঃ ক্ষুদ্র ও মাঝারী শিল্প বেশী ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে এবং সক্ষমতা হারাচ্ছে। ফলে এসএমই খাতে প্রদত্ত ঋণগুলো ক্রমশঃ খেলাপী ঋণে পরিণত হওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে।আর্থিক খাত উন্নয়নে এসএমই খাতের গুরুত্বপূর্ণ অবদান বিবেচনায় এ খাতের ক্ষতিগ্রস্ত ঋণগ্রহীতাদের ঋণ প্রবাহ অব্যাহত রাখার প্রয়োজনে এ নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে।