করোনায় আক্রান্ত রাজধানীর কোন এলাকায় কতজন
শনিবার, ৮ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

করোনায় আক্রান্ত রাজধানীর কোন এলাকায় কতজন

দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। তার মধ্যে রাজধানী ঢাকাতেই আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বেশি। গেল ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন দুই হাজার ৬৬৬ জন। এতে মোট করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক লাখ ৮৩ হাজার ৭৯৫ জনে। এছাড়া করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরও ৪৭ জন মারা গেছেন। মারা যাওয়া ৩৭ জনই ষাটোর্ধ্ব। ফলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে দুই হাজার ৩৫২ জনে।

রোববার (১২ জুলাই) দুপুরে করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, মারা যাওয়াদের মধ্যে ৩৬ জন পুরুষ এবং ১১ জন নারী। ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে ৬ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১৪ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১৫ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ৪ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে ২ জন, ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে একজন রয়েছেন। এদিকে আরও পাঁচ হাজার ৫৮০ সুস্থ হয়েছেন। এনিয়ে মোট ৯৩ হাজার ৬১৪ জন সুস্থ হলেন।

করোনাভাইরাস শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১১ হাজার ২১০টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। পরীক্ষা করা হয়েছে ১১ হাজার ৫৯টি নমুনা। এনিয়ে দেশে মোট নয় লাখ ৪০ হাজার ৫২৪টি নমুনা পরীক্ষা করা হলো। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২৪ দশমিক ১১ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫০ দশমিক ৯৩ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ২৮ শতাংশ।

তিনি জানান, মারা যাওয়া ৪৭ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগের ২৩ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ৬ জন, রাজশাহী বিভাগের ৪ জন, খুলনা বিভাগের ৬ জন, বরিশাল বিভাগের ২ জন, রংপুর বিভাগের ২ জন এবং সিলেট বিভাগের ৪ জন রয়েছেন। এদের মধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন ৪৩ জন এবং বাসায় মারা গেছে ৪ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য মতে, রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় আক্রান্তের সংখ্যা হলো- মিরপুর এলাকা ১,৮৭৩, উত্তরা ৭০৭, মোহাম্মদপুর ৬৩০, মহাখালী ৫৭২, যাত্রাবাড়ী ৫৪১, মুগদা ৫২১, ধানমন্ডি ৪৯৫, মগবাজার ৩৬৮, খিলগাঁও ৩৪৩, তেজগাঁও ৩৪০, রামপুরা ৩২১, বাড্ডা ৩২০, কাকরাইল ৩১১, লালবাগ ২৯৪, গুলশান ২৭৫, বাসাবো ২৫০, রাজারবাগ ২৩৮, মালিবাগ ২১৯, গেন্ডারিয়া ১৮৬, ওয়ারী ১৬৩, বাবু বাজার ১৬২, বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা ১৬২, বংশাল ১৫৬, আদাবর ১৫৩, আগারগাঁও ১৪৩, ডেমরা ১৪১, শ্যামলী ১৩৯, আজিমপুর ১৩৮, শাহবাগ ১৩৬, হাজারীবাগ ১৩৫, বনশ্রী ১৩০, বনানী ১২৯, শান্তিনগর ১১৭, রমনা ১১৫, পল্টন ১১২ ও পোস্তগোলা ৫ জন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে করোনাভাইরাস প্রথম শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ। ঠিক তার ১০ দিন পর প্রথম মৃত্যু হয় ১৮ মার্চ।

অর্থসূচক/এমএস

এই বিভাগের আরো সংবাদ