রাজস্ব আদায়ে ঋণাত্মক প্রবৃদ্ধি, ঘাটতি ৮৫ হাজার কোটি টাকা
বুধবার, ৫ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page
প্রবৃদ্ধি কমেছে ৩.৭৯%, লক্ষ্যমাত্রায় ঘাটতি ২৮.২৯%

রাজস্ব আদায়ে ঋণাত্মক প্রবৃদ্ধি, ঘাটতি ৮৫ হাজার কোটি টাকা

সদ্য সমাপ্ত (২০১৯-২০) অর্থবছরে রেকর্ড পরিমাণ রাজস্ব ঘাটতি হয়েছে। স্বাধীনতা-পরবর্তী রাজস্ব আহরণে এমন নাজুক অবস্থা আর কখনও দেখা যায়নি। বিশাল ঘাটতির পাশাপাশি প্রবৃদ্ধিও ছিল ঋণাত্মক অর্থাৎ ২০১৮-১৯ বছরের সমপরিমাণ রাজস্বও ২০১৯-২০ অর্থবছরে আহরণ করতে পারেনি রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সাময়িক হিসাব অনুযায়ী, গত ২০১৯-২০ অর্থবছরে মোট ঘাটতি ৮৫ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে গেছে। গেল অর্থবছরে এনবিআরের সংশোধিত লক্ষ্যমাত্রা ৩ লাখ ৫০০ কোটি টাকার বিপরীতে আদায় হয়েছে ২ লাখ ১৫ হাজার কোটি টাকা। যা গত অর্থবছরের তুলনায় ৮ হাজার ৪৯২ কোটি টাকা কম। গত অর্থবছরে রাজস্ব আদায় হয়েছিল ২ লাখ ২৩ হাজার ৮৯২ কোটি টাকা। হিসেব অনুযায়ী প্রবৃদ্ধি কমেছে ৩ দশমিক ৭৯ শতাংশ।

তথ্য মতে, রাজস্ব আয়ের তিন খাতের মধ্যে সবচেয়ে বেশি আদায় হয়েছে ভ্যাট থেকে। গত অর্থবছরে মোট ভ্যাট আদায় হয়েছে ৮১ হাজার ৬০০ কোটি টাকা। এরপরে বেশি আদায় হয়েছে আয়কর থেকে। আয়কর থেকে মোট আদায় হয়েছে ৭৩ হাজার ২০০ কোটি টাকা। এছাড়া কাস্টম থেকে আদায় হয়েছে ৬০ হাজার ৬০০ কোটি টাকা।

যেখানে ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ভ্যাট আদায় হয়েছিল ৮৭ হাজার ৬১০ কোটি টাকা। আয়কর আদায় হয়েছিল ৭২ হাজার ৯০০ কোটি টাকা। আর শুল্ক আদায় হয়েছিল ৬৩ হাজার ৩৮২ কোটি টাকা।

এনবিআরের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বলেন, এটি সাময়িক হিসাব। এ সপ্তাহের মধ্যে চূড়ান্ত পরিসংখ্যান প্রকাশ করা হবে। এতে খাতভিত্তিক বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হবে।

এনবিআর সূত্র জানায়, দেশ স্বাধীন হওয়ার পর একবার ১৯৭৫-৭৬ অর্থবছরে রাজস্ব আয়ে নেতিবাচক প্রবৃদ্ধি হয়েছিল। ওই সময় দেশে রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে রাজস্ব আয়ে মারাত্মক প্রভাব পড়ে। এর পরবর্তী বছরগুলোতে রাজস্ব আয় বাড়লেও নেতিবাচক প্রবৃদ্ধি হয়নি।

মূলত করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে অর্থনীতি বিপর্যস্ত হওয়ায় রাজস্ব আহরণে ধস নেমেছে। সাধারণত অর্থবছরের শেষ সময়ে বিশেষ করে মে ও জুনে রাজস্ব আদায় বাড়ে। রাজস্ব আহরণ কমে যাওয়ায় সরকারের নিয়মিত খরচ মিটাতে ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে রেকর্ড পরিমাণ ঋণ নিয়েছে।

বেসরকারি গবেষণা সংস্থা পিআরআই-এর নির্বাহী পরিচালক ডক্টর আহসান এইচ মনসুর বলেন, রাজস্ব ব্যবস্থায় বড় ধরনের সংস্কার করতে হবে। পুরো রাজস্ব বিভাগের খোলনালচে বদলে ফেলতে হবে। অভ্যন্তরীণ সম্পদ আহরণ না বাড়ালে সরকার বড় ধরনের বিপদে পড়বে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি।

অর্থসূচক/এমআরএম/কেএসআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ