গুলিতে নিহত দাদার বুকে বসে নাতির আর্তনাদ, কাশ্মীরজুড়ে ক্ষোভ
বুধবার, ৫ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

গুলিতে নিহত দাদার বুকে বসে নাতির আর্তনাদ, কাশ্মীরজুড়ে ক্ষোভ

ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানে কাশ্মীরে এক বেসামরিক নাগরিককে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। নিহত ৬৫ বছর বয়সী বশির আহমেদ খানের গুলিবিদ্ধ লাশের ওপর বসে কাঁদছে তার তিন বছর বয়সী নাতি। এমন একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

কাতার ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা জানায়, ভারত নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলটিতে এমন নির্মমতা স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে।

বশির আহমেদের ভাই নাজির আহমেদ বলেন, আমার ভাই কোনো যোদ্ধা ছিলেন না। তিনি কোনো বন্দুকও বহন করতেন না। কেন তাকে হত্যা করা হলো?

তবে স্থানীয় পুলিশ নাজির আহমেদের এই দাবি প্রত্যাখ্যান করেছে। তাদের দাবি, উত্তর শহর সোপোরে স্বাধীনতাকামী ও নিরাপত্তা বাহিনীর বন্দুকযুদ্ধে মধ্যে আটকে পড়ে বশির আহমেদের গাড়ি। ওই ঘটনায় নিরাপত্তা বাহিনীর এক সদস্য নিহত এবং তিনজন আহত হয়েছে বলে সাংবাদিকদের পুলিশ জানায়।

বশির আহমেদের ছেলে সুহাইল আহমেদ বলেন, আমরা একটা ফোন পাই, যাতে বলা হয় আমার বাবা একটা দুর্ঘটনায় পড়েছেন।

তিনি বলেন, আমরা যখন সোপোরে পৌঁছি, তখন আমাদের বলা হলো আমার বাবা বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। তিনি যদি বন্দুকযুদ্ধেই নিহত হন তাহলে তার লাশ গাড়িতে থাকার কথা ছিল, কিন্তু তাকে পড়ে থাকতে দেখি রাস্তায়।

নিহত এই কাশ্মীরির পরিবারের দাবি, তাকে গাড়ি থেকে নামিয়ে গুলি করে হত্যা করেছে ভারতীয় বাহিনী। মাসে ছয় হাজার রুপি বেতনের ছোটখাটো একটি চাকরি করতেন বশির আহমেদ।

এদিকে নিহত দাদার লাশের ওপর শিশু নাতির গড়াগড়ি খেয়ে কান্নার ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে কাশ্মীরিরা ক্ষোভে ফেটে পড়েন। নিরাপরাধ বেসামরিক লোক হত্যার প্রতিবাদে কয়েকশ স্থানীয় বাসিন্দা রাস্তায় নামে বিক্ষোভ করেন।

অর্থসূচক/কেএসআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ