শাকিবের বিরুদ্ধে সাইবার ক্রাইমে অভিযোগ
বুধবার, ৮ই জুলাই, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

শাকিবের বিরুদ্ধে সাইবার ক্রাইমে অভিযোগ

অনুমতি ছাড়া গান ব্যবহার করায় এস কে মুভিজের কর্ণধার চিত্রনায়ক শাকিব খানের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে অভিযোগ দায়ের করেছেন কণ্ঠশিল্পী দিলরুবা খান, গীতিকার আহমেদ কায়সার ও সুরকার আশরাফ উদাস।

অভিযোগে বলা হয়েছে, অনুমতি না নিয়ে ‘পাগল মন’ গান রিমেক করে সিনেমায় ব্যবহার করেছেন শাকিব খান। সম্প্রতি ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) সাইবার ইউনিটে ক্ষতিপূরণ ও আইনি ব্যবস্থার দাবি করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৩ ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। দিলরুবা খানের পক্ষে সাইবার ক্রাইমে অভিযোগটি দায়ের করেন আইনজীবী ওলোরা আফরিন। অভিযোগে একটি মোবাইল ফোন কোম্পানির ৫ কর্মকর্তার নামও উল্লেখ করা হয়েছে।

দিলরুবা খান নিজেই এ খবর নিশ্চিত করেছেন। ছবিটি মুক্তির ১ বছর পর এ অভিযোগের কারণ কি, আগে অভিযোগ করেননি কেন? জানতে চাইলে দিলরুবা খান জানান, ‘আমরা চেয়েছিলাম সমঝোতা করতে। ছবি সংশ্লিষ্ট কয়েক জনকে এ ব্যাপারে অবগত করলেও সাড়া পাওয়া যায়নি। তাই বাধ্য হয়ে অভিযোগ করতে হয়েছে।’

ব্যারিস্টার ওলোরা আফরিন গণমাধ্যমকে জানান, আমরা ক্ষতিপূরণ দাবি করে অভিযোগ করেছি। যদি ক্ষতিপূরণ দেওয়া না হয়, তাহলে মামলাটা এগোবে।

এদিকে এ অভিযোগ ভিত্তিহীন দাবি করে পাসওয়ার্ড ছবির পরিচালক মালেক আফসারী বলেন, ‘ছবিটি মুক্তির এক বছর হয়ে গেছে। এত দিন পর তিনি অভিযোগ করলেন আগে করেনি কেন? তার অনুমতি নিয়েই গানটি ব্যবহার করা হয়েছে। শাকিব আমার সামনে বসে নিজে ফোন করে তার সাথে কথা বলে অনুমতি নেয়। তিনি খুশি মনে গানটি ব্যবহার করতে বলেন। শাকিব লিখিত দিতে বললে দিলরুবা খান জানান তুমি আমার ছোট ভাই লিখিত লাগবে না ব্যবহার করো। তিনি নিজে অনুমতি দিয়ে এখন কেন অভিযোগ করছেন বুঝলাম না। তবে কি শাকিবের নাম ব্যবহার করে আলোচনায় আসার জন্য অভিযোগ করেছেন? তা করে থাকলে তিনি ভুল করেছেন।’

পাসওয়ার্ড ছবির সহ-প্রযোজক মোহাম্মদ ইকবাল জানান, ‘১৯৯৩ সালে মুক্তি পাওয়া তোজাম্মেল হক বকুল পরিচালিত ‘পাগল মন’ ছবিতে ‘পাগল মন মনরে’ গানটি বিক্রি করে দেয় কন্ঠশিল্পী দিলরুবা খান। নাদের খান ছবিটির সহ-প্রযোজক ছিলেন। তার অনুমতি নিয়ে আমরা দুটি লাইন ব্যবহার করি। নাদের ভাই সাত হাজার টাকায় গানটি তার কাছ থেকে কিনে নেন। একই গান সে কয়জনের কাছে বিক্রি করবে? শাকিব যখন তার কাছ থেকে অনুমতি নিয়েছে তখন আমি উপস্থিত ছিলাম।’

নাদের খান জানান, ‘কন্ঠশিল্পী দিলরুবা খানের কাছ থেকে ‘পাগল মন’ ছবির জন্য ‘পাগল মন মনরে’ গানটি সাত হাজার টাকায় আমরা কিনে নিয়েছিলাম।’

রেজিস্ট্রার অফ কপিরাইট অফিসের (যুগ্ম সচিব) জাফর রাজা চৌধুরী বলেন, ‘তোজাম্মেল হক বকুল অনুপম কোম্পানীর কাছে ছবি ও গান বিক্রি করে দিয়েছে। অতএব তোজাম্মেল হক বকুল এ গানের দাবিদার নেই। কপিরাইটস আইনে কন্ঠশিল্পী দিলরুবা খান, গীতিকার আহমেদ কায়সার ও সুরকার আশরাফ উদাস এ গানের মালিক। তাদের অনুমতি ছাড়া একটি শব্দও ব্যবহার করলে সেটি কপিরাইট আইন লঙ্ঘন।’

দিলরুবা খান নব্বইয়ের দশকে জনপ্রিয় ‘পাগল মন’ গানটি গেয়েছেন। গানটির কথা লিখেছেন আহমেদ কায়সার ও সুরকার আশরাফ উদাস। গানটি তিনজনেরই কপিরাইট করা আছে বলে দাবি করেন শিল্পী দিলরুবা খান। গত বছরের মে মাসে শাকিব খানের ইউটিউবে ‘পাসওয়ার্ড’ ছবির ‘পাগল মন’ গানটি প্রকাশিত হয়। গানটির সুর ও সঙ্গীত পরিচালনা করেন ভারতীয় সঙ্গীত পরিচালক লিংকন। আর গানটিতে কণ্ঠ দেন অশোক সিং। ছবিটি মুক্তির আগেই কোরিয়ান ছবি নকলের অভিযোগ ওঠে। পরে সেন্সরবোর্ড ছবিটির প্রযোজক শাকিব খান ও পরিচালক মালেক আফসারীকেও এ ব্যাপারে সতর্ক নোটিশ জারি করে ভবিষ্যতে এ জাতীয় কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়।

এদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রযোজক বলেন, ছবি মুক্তির এক বছর প্রায় পার হতে যাচ্ছে এতোদিন পর কেন দিলরুবা খান কপিরাইট আইনে মামলাটি করতে গেলেন। তার উচিৎ ছিল সঙ্গে সঙ্গে অ্যাকশনে যাওয়া। এমনতো নয় যে ছবিটি লুকিয়ে সিনেমা হলে দেখানো হয়েছে।

অর্থসূচক/এএইচআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ