আগামিকাল শাহা্জীবাজারের রিফান্ড বিতরণ শুরু
সোমবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » খাত/কোম্পানি পর্যালোচনা

আগামিকাল শাহা্জীবাজারের রিফান্ড বিতরণ শুরু

Shajibajar_Power

শাহজিবাজার কোম্পানি

শাহা্জীবাজার পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেডের এ্যালোটমেন্ট লেটার বা বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ শুরু হবে আগামিকাল বুধবার। এদিন থেকে ১৬ মে পর্যন্ত রিফান্ড বিতরণের সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রতিদিন সকাল ৯ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত ব্যাংক রশিদের বিনিময়ে বরাদ্দপত্র এবং রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে।

বরাদ্দপত্র এবং রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে পল্টন কমিউনিটি সেন্টার ৪২, নয়াপল্টন এবং কেন্দ্রীয় কচি কাঁচার মেলা ৩৭/এ সেগুন বাগিচা।

জানা যায়, ১২ মে, সোমবার পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে  বিতরণ করা হবে  ব্যাংক এশিয়া লিমিটেডের অনুমোদিত সকল শাখা সমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট।

এদিন কেন্দ্রীয় কচি কাঁচার মেলায় বিতরণ করা হবে ঢাকা  ব্যাংক লিমিটেড এবং ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ লিমিটেড (আইসিবি) অনুমোদিত সকল শাখা সমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট।

১৩ মে, মঙ্গলবার পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে   বিতরণ করা হবে ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের  অনুমোদিত সকল শাখা সমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট।

এদিন কেন্দ্রীয় কচি কাঁচার মেলায় বিতরণ করা হবে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড অনুমোদিত সকল শাখা সমূহের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট।

১৪ মে, বুধবার মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেডের সকল শাখার রিফান্ড এবং বরাদ্দপত্র বিতরণ করা হবে পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে। এছাড়া যমুনা ব্যাংক লিমিটেডের রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে কেন্দ্রীয় কচি কাঁচার মেলায়।

১৫ মে, বৃহস্পতিবার  পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেডের অনুমোদিত সকল শাখার রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে। এছাড়া কেন্দ্রীয় কচি কাঁচার মেলায় সোসাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে।

১৬ মে, শুক্রবারসাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেডের অনুমোদিত সকল শাখার রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ  পল্টন কমিউনিটি সেন্টারে।

এছাড়া কেন্দ্রীয় কচি কাঁচার মেলায় অনিবাসী বাংলাদেশী (এনআরবি) সকল মিউচুয়্যাল ফান্ড এবং আই/এ বিনিয়োগ হিসাব সমূহের রিফান্ড ওয়ারেন্ট বিতরণ করা হবে।

জানা যায়, প্রত্যেক বিনিয়োগকারী তাদের নিজ নিজ ব্যাংক একাউন্ট থেকে তাদের রিফান্ড ওয়ারেন্ট সংগ্রহ করতে পারবে। যেসব বিনিয়োগকারীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে অনলাইন সুবিধা চালু নেই তাদের উপোরক্ত ঠিকানা থেকে রিফান্ড সংগ্রহ করতে হবে।

তবে যেসব বিনিয়োগকারী এবি ব্যাংক লিমিটেড, আল-আরফা ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, আল –ফালাহ ব্যাংক,ব্যাংক এশিয়া  লিমিটেড, ব্রাক ব্যাংক লিমিটেড,কমার্শিয়াল ব্যাংক অব সিলন পিএলসি, ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড, ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড, ইস্টার্ণ ব্যাংক লিমিটেড,এক্সিম ব্যাংক লিমিটেড, ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামি ব্যাংক লিমিটেড, যমুনা ব্যাংক লিমিটেড, মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেড, মিউচুয়্যাল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড, ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড, ন্যাশনাল ব্যাংক অব পাকিস্তান, এনসিসি ব্যাংক ব্যাংক লিমিটেড, ওয়ান ব্যাংক লিমিটেড, প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেড, প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড, শাহাজালাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড, স্ট্যান্ডার্ড চার্টাড ব্যাংক, স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া, দি সিটি ব্যাংক ট্রাস্ট ব্যাংক এবং উরি ব্যংকে যাদের অ্যাকাউন্ট আছে তাদের নিজ নিজ অ্যাকাউন্টে রিফান্ড জমা হয়ে যাবে।তবে প্রবাসী বিনিয়োগকারীরা এ সুযোগ পাবে না।

উল্লেখ্য, যারা নির্ধারিত তারিখের মধ্যে  যাদের বরাদ্দপত্র ও রিফান্ড ওয়ারেন্ট ব্যাংকে জমা হবে না, তাদেরকে ১ লা জুন থেকে ১৫ এপ্রিলের মধ্যে যোগাযোগ করতে হবে।

কেন্দ্রীয় কচি কাঁচার মেলায় সকাল সাড়ে ৯টা ৩০ মিনিট থেকে ৪টা পর্যন্ত যোগাযোগ করা যাবে।

এসএ/

এই বিভাগের আরো সংবাদ