কোন জেলায় কতজন করোনায় আক্রান্ত
বুধবার, ৮ই জুলাই, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

কোন জেলায় কতজন করোনায় আক্রান্ত

দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। গেল ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন দুই হাজার ৮৫৬ জন। এই নিয়ে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৪ হাজার ৩৭৯ জনে। এছাড়া করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরো ৪৪ জন মারা গেছেন। ফলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ১৩৯ জনে। এদিকে আরো ৫৭৮ জন সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে মোট ১৭ হাজার ৮২৭ জন সুস্থ হলেন।

শনিবার (১৩ জুন) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। অনলাইনে বুলেটিন উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, করোনা ভাইরাস শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ১৪ হাজার ৩৫টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় আগের কিছু মিলিয়ে ১৬ হাজার ৬৩৮টি নমুনা। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো চার লাখ ৮৯ হাজার ৯৬০টি। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১৭.১৭ শতাংশ। আর শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ২.১৩ শতাংশ।

তিনি আরও বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ৪৯৬ জনকে। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ৯ হাজার ৩৪০ জন। ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ১৬৮ জন। আর এখন পর্যন্ত ছাড় পেয়েছেন ৫ হাজার ২২৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাতিষ্ঠানিক ও হোম কোয়ারেন্টিন মিলে কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে ২ হাজার ৪১৪ জনকে। এখন পর্যন্ত ৩ লাখ ১৭ হাজার ৬৪৪ জনকে কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে। কোয়ারেন্টিন থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় ছাড় পেয়েছেন এক হাজার ৪৮০ জন। ২ লাখ ৫৬ হাজার ৮৫৯ জন ছাড় পেয়েছেন। বর্তমানে মোট কোয়ারেন্টিনে আছেন ৬০ হাজার ৭৮৫ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য মতে দেশের বিভিন্ন জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা হলো— ঢাকা ২৩,৪৯৭, চট্টগ্রাম ৩,২৭৭, নারায়ণগঞ্জ ২,৭৭৯, মুন্সীগঞ্জ ১,৩৮১, কুমিল্লা ১,২৭৯, গাজীপুর ১,১৮৭, কক্সবাজার ১,১০০, নোয়াখালী ৯০৭, ময়মনসিংহ ৬৮৩, সিলেট ৬৭৬, রংপুর ৫৫০, ফরিদপুর ৫০৩, কিশোরগঞ্জ ৪৪৪, ফেনী ৩৬০, গোপালগঞ্জ ৩৩৬, জামালপুর ৩২৪, নেত্রকোনা ২৮০, সুনামগঞ্জ ২৭৬, মাদারীপুর ২৬৯, বগুড়া ২৬৯, চাঁদপুর ২৬২, খুলনা ২৩২, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২২৩, নওগাঁ ২১২, নরসিংদী ১৯৭, যশোর ১৮৯, বরিশাল ১৮৫, জয়পুরহাট ১৮৩, দিনাজপুর ১৮২, হবিগঞ্জ ১৭৫, মানিকগঞ্জ ১৬৭, কুষ্টিয়া ১৬০, শরীয়তপুর ১৫৭, লক্ষ্মীপুর ১৪৫, নীলফামারী ১৩৮, শেরপুর ১৩৪, চুয়াডাঙা ১২৪, পাবনা ১১৯, মৌলভীবাজার ১১৬, রাজবাড়ী ১০৭, পটুয়াখালী ৯০, রাজশাহী ৮৬, বরগুনা ৮১, ভোলা ৮০, কুড়িগ্রাম ৭৮, রাঙ্গামাটি ৭৭, গাইবান্ধা ৭৬, ঠাকুরগাঁও ৭৪, নাটোর ৬৯, ঝিনাইদহ ৬৮, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৬৬, বান্দরবান ৬৫, বাগেরহাট ৬৩, খাগড়াছড়ি ৫৭, টাঙ্গাইল ৫৬, সাতক্ষীরা ৫৬, নড়াইল ৫২, পঞ্চগড় ৫২, লালমনিরহাট ৪৫, ঝালকাঠী ৪৩, সিরাজগঞ্জ ৪৩, পিরোজপুর ৪২ ও মেহেরপুর ৩৫ জন।

উল্লেখ্য, দেশে গত ৮ মার্চ প্রথম করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্তের ঘোষণা দেয় আইইডিসিআর। তার ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

অর্থসূচক/এমএস

এই বিভাগের আরো সংবাদ