বিকালে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাথে বিএসইসির বৈঠক
মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই, ২০২০
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

বিকালে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাথে বিএসইসির বৈঠক

আজ  সোমবার (১ জুন)বিকালে বাংলাদেশ ব্যাংকে যাচ্ছেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি)চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম ও কমিশনারবৃন্দ।সেখানে তারা বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবিরের সঙ্গে এক অনানুষ্ঠানিক বৈঠকে মিলিত হবেন।বৈঠকে ডেপুটি গভর্নররাও উপস্থিত থাকবেন বলে জানা গেছে।


অর্থসূচকে প্রকাশিত পুঁজিবাজার ও অর্থনীতির গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলো পাওয়া যাচ্ছে আমাদের ফেসবুক গ্রুপ Sharebazaar-News & Analysis এ। এতে যোগ দিয়ে সহজেই থাকতে পারেন আপডেট।


অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বিএসইসির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নেওয়ার পর আজকেই প্রথম বাংলাদেশ ব্যাংকের সঙ্গে কোনো বৈঠক করছেন। অবশ্য বিএসইসি এবং বাংলাদেশ ব্যাংক-উভয় প্রতিষ্ঠানটি এটিকে সৌজন্য সাক্ষাক হিসেবে অভিহিত করছে। তবে এই সৌজন্য সাক্ষাতকালেই পুঁজিবাজার ও মুদ্রা বাজারের বিভিন্ন ইস্যু এবং বিএসইসি ও বাংলাদেশ ব্যাংকের পারস্পরিক সহযোগিতার নানা দিক নিয়ে আলোচনা হবে বলে জানা গেছে। বিশেষ করে করোনাভাইরাস প্রকোপজনিত পরিস্থিতিতে সম্ভাব্য ঝুঁকি মোকাবিলা ও পুঁজিবাজারের উন্নয়নের বিসয়টি আলোচনা স্থান পাবে।

সোমবার (১ জুন) বিকেল ৩টায় বাংলাদেশ ব্যাংক কার্যালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবার কথা রয়েছে। এ সময় বিএসইসির চেয়ারম্যানের সঙ্গে তিনজন কমিশনারও উপস্থিত থাকবেন,যাদের মধ্যে দু’জন গত মাসে যোগ দিয়েছেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আজকের বৈঠকটি একেবারেই অনানুষ্ঠানিক হওয়ায় এর কোনো আলোচ্যসূচি তৈরি করা হয়নি। আলোচনাতে অনেক বিষয়ই উঠে আসতে পারে। আর  কোনো বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের আপত্তি নেই।

bangladesh-bank-bsec

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন ও বাংলাদেশ ব্যাংকের লোগো

জানা গেছে, বৈঠকে পুঁজিবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগের বিষয়টি নিয়েও আলোচনা করতে পারে বিএসইসি। সরকারের নির্দেশে বাংলাদেশ ব্যাংক গত ১০ ফেব্রুয়ারি পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের জন্য প্রত্যেক ব্যাংককে বিশেষ সুবিধায় ২শ কোটি টাকা তহবিল গঠনের সুযোগ করে দেয়। সবগুলো ব্যাংক মিলিয়ে এই তহবিলের আকার প্রায় ১২ হাজার কোটি টাকা।ওই সময়ে ব্যাংকগুলো সর্বশেষ বছরের আর্থিক প্রতিবেদন তৈরি ও লভ্যাংশ ঘোষণার বিষয় নিয়ে ব্যস্ত ছিল। তাই বেশিরভাগ ব্যাংক পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের জন্য ওই তহবিল গঠন করতে পারেনি। এর মধ্যেই করোনাভাইরাসের জন্য গত ২৬ মার্চ দেশে সাধারণ ছুটি শুরু হয়ে যায়। তাতে বন্ধ হয়ে পুঁজিবাজার। রোববার (৩১ মে)৬৬ দিন পরে পুঁজিবাজারে লেনদেন শুরু হয়েছে। এর মধ্যে দেশে ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে করোনা পরিস্থিতি ভয়ানক আকার ধারণ করেছে,লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে বিশ্ব অর্থনীতি। পুঁজিবাজারে এই পরিস্থিতি ও গণআতঙ্কের প্রভাব পড়ার আশংকা রয়েছে।তাই বাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগের বিষয়টি আগের চেয়েও বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ