লিবিয়ায় মানব পাচারকারীদের গুলিতে ভৈরবের ৫ জন নিহত, আহত ৩
শুক্রবার, ৩রা জুলাই, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

লিবিয়ায় মানব পাচারকারীদের গুলিতে ভৈরবের ৫ জন নিহত, আহত ৩

লিবিয়ায় মানব পাচারকারীদের গুলিতে ভৈরবের ৫ জন মারা গেছে। একই ঘটনায় ৩ জন গুরুতর আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে লিবিয়ায় এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে বলে নিহতদের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে। আহতরা লিবিয়ার ত্রিপলীতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

নিহতদের পরিবারের সদস্যরা জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে তারা ঘটনার খবর পায়। তারা সবাই লিবিয়া থেকে স্বপ্নের দেশ ইতালী যেতে এদেশ থেকে গিয়েছিল। সেখানে গিয়ে মানবপাচারকারীদের হাতে বন্দি হয়। সংসারের সচ্ছলতা ফিরিয়ে আনতে তারা অনেকেই বাড়ী-ঘর, জমি-জমা বিক্রি করে লিবিয়া যায় ইতালী যেতে। কিন্ত তারাসহ তাদের পরিবারের সব স্বপ্ন ভেংগে গেল। মানব পাচারকারীদের হাতে নিহত হলো তারা। এখন লাশের অপোয় রয়েছে পরিবারের সদস্যরা। প্রত্যেকের পরিবারে চলছে কান্নার মাতম। তাদের কান্নায় আকাশ বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে। প্রতিবেশীরা শান্তনা দিলেও তাদের কান্না থামাতে পারেনি।

যারা নিহত হয়েছে তারা হলো ভৈরব উপজেলার আকবরনগর গ্রামের জিন্নত আলীর ছেলে মাহবুব ( ২১), রুসুলপুর গ্রামের মেহের আলীর ছেলে মোঃ আকাশ ( ২৬), রাজন,শাকিল, সাকিব। এছাড়া সম্ভুপুর গ্রামের আঃ সাত্তার মিয়ার ছেলে মোঃ জানু মিয়া (২৭),মৌটুপী গ্রামের আবদুল আলীর ছেলে মোঃ সোহাগ (২০), জগন্নাথপুর গ্রামের সজল গুরুতর আহত হয়ে ত্রিপলীর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে


জানা গেছে নিহতরা প্রত্যেকে বাড়ীঘর জমিজমা বিক্রি করে ৫/৬ লাখ টাকা দালালকে দিয়ে লিবিয়ায় যায়। কথা ছিল লিবিয়ায় পৌঁছানোর পর তাদেরকে পরে সুবিধাজনক সময়ে সাগর পাড়ি দিয়ে অবৈধ পথে ইতালী পাঠানো হবে। কিন্ত তারা লিবিয়ায় পৌঁছলে সেখানে একটি দালাল চক্র একটি গুদামে বন্দি করে আরও টাকা দাবী করে। এদের মধ্য দুই একজন লিবিয়ায় কয়েকমাস কাজও করে। প্রবাসে যাওয়া সবাই দরিদ্র পরিবারের হওয়ায় কেউ পাচারকারীদের দাবী অনুযায়ী টাকা বাড়ী থেকে দিতে পারছিল না। তাদেরকে গুদামে বন্দি রোখে তিন বেলা খাবারও দেয়নি পাচারকারীরা। তাদেরকে করেছে নির্যাতন। এরই মধ্য পাচারকারীরা কয়েকজনকে চাপ সৃষ্টি করে বাড়ীতে মোবাইল করে জানাতে বাধ্য করে টাকা না দিলে সবাইকে মেরে ফেলবে। এসব নিয়ে গত বুধবার তারা পাচারকারী দলের একজনকে মারধোর করে। এতে প্তি হয়ে লিবিয়ার মানবপাচারকারী চক্রের সদস্যরা গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাস্হল গুদামে এসে নির্বিচারে গুলি চালালে ৩০ জন নিহত ও কয়েকজন আহত হয়। ঘটনার পর পর পাচারকারীরা পালিয়ে যায় বলে পরিবারের সদস্যরা জানতে পারে। খবর পেয়ে লিবিয়ার পুলিশ ঘটনাস্হলে এসে লাশ উদ্ধার করে। এরপর কি হয়েছে এখবর পরিবারের সদস্যরা জানেনা বলে জানায়। ভৈরবের জীবিত প্রবাসীরা এসব খবর তাদেরকে জানিয়েছে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ