যুক্তরাজ্যের কোম্পানিকে কালো তালিকাভুক্তির হুমকি
সোমবার, ১লা জুন, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

যুক্তরাজ্যের কোম্পানিকে কালো তালিকাভুক্তির হুমকি বিজিএমইএ’র

বিশ্বব্যাপী মহামারি আকার ধারণ করেছে নভেল করোনা ভাইরাস। যার ফলে থমকে গেছে সারা বিশ্বের অর্থনীতি। এর ফলে দেশের বিভিন্ন কারখানার রপ্তানি অর্ডার বাতিল হয়ে গেছে। এরই প্রেক্ষিতে রপ্তানি হওয়া পোশাকের বকেয়া অর্থ না দিলে যুক্তরাজ্যের কোম্পানি এডিনবার্গ উলেন মিলসকে (ইডব্লিউএম) কালো তালিকাভুক্ত করার হুমকি দেওয়া হয়েছে।

bgmea

আজ শনিবার (২৩ মে) বিজিএমইএ’র সভাপতি বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন।

গত ২১ মে ইডব্লিউএমের প্রধান নির্বাহী ফিলিপ অ্যাডওয়ার্ড ডে’র ই-মেইলে পোশাক মালিকদের পক্ষে বিজিএমইএ সভাপতি রুবানা হক একটি বার্তা পাঠান।

সেখানে বলা হয়েছে, গত ২৫ মার্চ পর্যন্ত ইডব্লিউএম ও তাদের সহযোগী প্রতিষ্ঠানের ক্রয়াদেশের বিপরীতে যেসব পণ্য তাদের মনোনীত ফ্রেইড ফরোয়ার্ডের মাধ্যমে জাহাজীকরণ সম্পন্ন করা হয়েছে তার অর্থ ২৯ মে’র মধ্যে পরিশোধ করতে হবে।  এছাড়া, ইতিমধ্যে যেসব ক্রয়াদেশ দেওয়া হয়েছে, ওইগুলোর বিষয়ে সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে ৫ জুনের মধ্যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দিতে হবে। বিষয়গুলো সুরাহা না হলে ইডব্লিউএমের কোনো নতুন ক্রয়াদেশের জন্য শুল্কমুক্ত কাঁচামাল আমদানির সনদ ইউটিলাইজেন ডিক্লারেশন বা ইউপি ইস্যু করবে না বিজিএমইএ ও বিকেএমইএ।

বকেয়া অর্থ পরিশোধ ও নির্দেশনাগুলো মেনে চলার কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বিজিএমইএ বলছে, নির্দেশনা অনুসরণ না করলে ইডব্লিউএম ও তাদের সহযোগী প্রতিষ্ঠানকে কালো তালিকাভুক্ত করা ছাড়া বিকল্প উপায় থাকবে না। এটি হলে ভবিষ্যতে বাংলাদেশের সঙ্গে ইডব্লিউএম ও তাদের সহযোগী প্রতিষ্ঠানের ব্যবসা করা ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি ও কালো তালিকাভুক্ত করা হবে।

করোনা ভাইরাসের কারণে সম্প্রতি ইডব্লিউএম বাংলাদেশের রিভার সাইড সোয়েটার, স্কাইলাইন অ্যাপারেলস, সাউদার্ন ডিজাইনারস লিমিটেডসহ কয়েকটি কারখানার ১১ লাখ ৯৫ হাজার পিস পোশাকের ক্রয়াদেশ বাতিল করেছে। ক্রয়াদেশ বাতিল হওয়া পোশাকের রপ্তানি মূল্য ৮২ লাখ ডলারের বেশি।

ইডব্লিউএম ৭৩ বছরের পুরনো গ্রুপ। তাদের পিকক, কান্ট্রি ক্যাজুয়াল, অস্টিন রেডসহ বেশ কিছু পোশাকের ব্র্যান্ড রয়েছে। প্রায় ৪০টি বিক্রয় কেন্দ্র রয়েছে।

অর্থসূচক/এমআরএম/এমএস

এই বিভাগের আরো সংবাদ