ক্রাইস্টচার্চের ভয়াবহ স্মৃতি স্মরণ করলেন তামিম-উইলিয়ামসন
বুধবার, ২৭শে মে, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

ক্রাইস্টচার্চের ভয়াবহ স্মৃতি স্মরণ করলেন তামিম-উইলিয়ামসন

২০১৯ সালের ১৫ মার্চ সন্ত্রাসী হামলায় কেঁপে উঠেছিল নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ। সেই হামলা থেকে অল্পের জন্য বেঁচে গিয়েছিলেন বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। আজ লাইভে এই ঘটনা স্মরণ করলেন তামিম ইকবাল ও কেন উইলিয়ামসন।

হামলার শিকার না হলেও মানসিকভাবে অনেক ধকল গিয়েছিল বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের ওপর। নৃশংস এই ঘটনার পর অবশ্য নিউজিল্যান্ডের মানুষের সমাদর পান তামিমরা।

উইলিয়ামসনকে তামিম বলেন, শেষ করার আগে আমি তোমাকে কিছু কথা বলতে চাই। এটা নিয়ে খুব একটা কথা বলার সুযোগ হয়নি। ২০১৯ সালে ক্রাইস্টচার্চের ঘটনা নিয়ে কথা বলি, নিউজিল্যান্ডের মানুষ আমাদের অনেক যত্ন নিয়েছে, হোটেলে আমাদের অনেকেই জিগ্যেস করেছে, আমরা ভালো আছি কিনা।

উইলিয়ামসনকে তিনি আরও বলেন, আমি যখন দেশে ফেরার জন্য চেক ইন করি, তখন বিমানের মহিলাকে জিগ্যেস করি যে আমি কি পরিমাণ ওজন নিতে পারব। তোমাদের ওপর যে ধকল গিয়েছে, তোমরা যা খুশি, সেই পরিমাণ ওজন নিতে পারো। এটা খুবই ছোট ঘটনা। আসলে ওই সময়ে নিউজিল্যান্ডের মানুষ আমাদের যেভাবে সমাদর করেছে সেটা ভোলার মতো না। দলের সব সদস্যই মনে রাখবে। তোমাদের প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে সবাই খুব দারুণ ছিল। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের হয়ে আমি তোমাদের ধন্যবাদ জানাতে চাই। যে পরিমাণ সমাদর তোমরা করেছো, তার জন্য।

জবাবে উইলিয়ামসন বলেন, ‘তোমরা যে অভিজ্ঞতার মধ্যে দিয়ে গিয়েছ সেটা খুবই খারাপ অবশ্যই। পুরো দেশকে এটা খুব গভীরভাবে নাড়া দিয়ে গেছে। সেটা খুবই বাজে সময় ছিল, বলতেই হবে। ধন্যবাদ তোমাকে, আমাকে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য।’

সেদিন এক আততায়ী জুমার নামাজের সময় মসজিদে গুলি করে হত্যা করেছিল অনেক ধর্মপ্রাণ মুসলিমকে। ক্রাইস্টচার্চের সেই মসজিদেই নামাজ পড়তে যাচ্ছিলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। মসজিদে ঢোকার আগেই এক নারী তামিম-মাহমুদউল্লাহদের সতর্ক করে দিয়েছিলেন। বলেছিলেন মসজিদে গোলাগুলি হচ্ছে। এর ফলে ভাগ্যক্রমেই সেদিন বেঁচে গিয়েছিলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা।

অর্থসূচক/এএইচআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ