করোনাভাইরাসে চট্টগ্রামে পীরের মৃত্যু
মঙ্গলবার, ২রা জুন, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

করোনাভাইরাসে চট্টগ্রামে পীরের মৃত্যু

নভেল করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন চট্টগ্রামের বায়তুশ শরফের পীর বাহরুল উলুম শাহ মাওলানা কুতুব উদ্দিন (ইন্নাল্লিাহি…রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর।

আজ বুধবার (২০ মে) বিকালে আড়াইটায় রাজধানীর ঢাকার আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।


প্রিয় পাঠক,করোনাভাইরাস সংক্রান্ত দেশ-বিদেশের নির্বাচিত নিউজ ও টিপস এখন থেকে পাওয়া যাবে আমাদের

ফেসবুক গ্রুপ Corona: News & Tips এ। গ্রুপটিতে যোগ দিয়ে সহজেই থাকতে পারেন আপডেট।


অশতীপর পীর কুতুব উদ্দিন ডায়াবেটিস ও হৃদরোগের সমস্যা ছিল।গত কয়েকদিন আগে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। অবস্থার অবনতি হলে সোমবার গভীর রাতে তাকে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন হসপিটালে ভর্তি করা হয়।ভর্তির সময় পরিবার ও তার মাদ্রাসার পক্ষ থেকে ডায়াবেটিস আর হৃদরোগের সমস্যার কথাই জানানো হয়।তবে তার জ্বর,কাশি এবং শ্বাসকষ্টও ছিল।

তার অবস্থার আরও অবনতি হলে মঙ্গলবার রাতে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে তাঁকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়।ভর্তি করা হয় আনোয়ার খান মডার্ন মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে।সেখানে তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়।

পীর কুতুব উদ্দিনকে ঢাকায় পাঠানোর আগে তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল করোনা আছে কি-না জানতে।আজ সন্ধ্যায় চট্টগ্রামে করোনাভাইরাস পরীক্ষার অন্যতম প্রধান ল্যাব চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাব কর্তৃপক্ষ জানায়,তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন।নমুনায় এই ভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে।

আগামীকাল বৃহস্পতিবার বাদ জোহর বায়তুশ শরফ ময়দানে তার জানাজার নামাজ হওয়ার কথা ছিল।কিন্তু করোনায় সংক্রমণের কারণে সে পরিকল্পনা বাতিল করা হচ্ছে।সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে করোনাভাইরাস রোগীদের জন্য সরকার নির্ধারিত নিয়ম মেনেই পীর কুতুব উদ্দিনের দাফন কাফন করার প্রস্তুতি নিচ্ছে চট্টগ্রামের পুলিশ।কিছুদিন আগে একজন ধর্মীয় নেতার মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়ায় যে অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটে গেছে,বায়তুশ শরফের পীরের জানাজাকে কেন্দ্র করে যাতে সেই ধরনের কোনো পরিস্থিতি তৈরি না হয় সে চেষ্টা চালাচ্ছে স্থানীয় পুলিশ। এ লক্ষ্যে তারা মরহুমের পরিবার ও বায়তুশ শরফ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করছে বলে জানা গেছে।

চট্টগ্রামের বায়তুশ শরফের পীর কুতুব উদ্দিন

মাওলানা কুতুব উদ্দিনের জন্ম ১৯৩৮ সালে, চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার আধুনগরের সুফি মিয়াজি পাড়ায়।ক্ষণজন্মা এই আধ্যাত্মিক পুরুষ ব্যক্তিগত জীবনে তিনি এক পুত্র ও ৬ কন্যা সন্তানের জনক।

হাদিস বিশারদ ও কুরআনের তাফসিরকারক মাওলানা কুতুব উদ্দীন আরবি, ফার্সি ও উর্দু ভাষাবিদ হিসেবে আন্তর্জাতিকভাবে খ্যাতিমান। কর্মজীবনে তিনি বায়তুশ শরফ আদর্শ কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে দেশের সেরা অধ্যক্ষের পুরস্কারও অর্জন করেন।

তিনি চট্টগ্রাম নগরীর ডবলমুরিং থানা এলাকার ধনিয়ালা পাড়ায় অবস্থিত বায়তুশ শরফের প্রতিষ্ঠাতা প্রখ্যাত সূফীসাধক মাওলানা মীর মুহাম্মদ আখতার (রহ) এবং বায়তুশ শরফের প্রধান রূপকার শাহ সূফী মাওলানা মুহাম্মদ আবদুল জব্বার (রহ) এর সান্নিধ্যে অবস্থান করে আধ্যাত্মিক সাধনায় নিমগ্ন হন। ১৯৯৮ সাল থেকে আমৃত্যু তিনি বায়তুশ শরফের পীর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।তার লেখা একাধিক বিখ্যাত ধর্মীয় গ্রন্থও রয়েছে।

তিনি ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড ও ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক শরীয়াহ বোর্ডের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

এই বিভাগের আরো সংবাদ