ঋণ খেলাপি নন বিএসইসির নতুন চেয়ারম্যান
মঙ্গলবার, ২রা জুন, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

ঋণ খেলাপি নন বিএসইসির নতুন চেয়ারম্যান

পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নতুন নেতৃত্বে এসেছেন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম। গত রোববার (১৭ মে) তিনি সংস্থাটির চেয়ারম্যান হিসেবে যোগ দিয়েছেন। রাষ্ট্রায়ত্ত সাধারণ বীমা করপোরেশনের চেয়ারম্যান হিসেবে দারুণ সাফল্য দেখানো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাণিজ্য অনুষদের সাবেক এই ডিন পুঁজিবাজারের উন্নয়নেও কার্যকর ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবেন বলে স্টেকহোল্ডারদের আশা।


অর্থসূচকে প্রকাশিত পুঁজিবাজার ও ব্যাংক-বিমার খবর গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলো এখন নিয়মিত পাওয়া যাচ্ছে আমাদের ফেসবুক

গ্রুপ Sharebazaar-News & Analysis এ। প্রিয় পাঠক,গ্রুপটিতে যোগ দিয়ে সহজেই থাকতে পারেন আপডেট।


এদিকে শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলামের নিয়োগের খবর প্রকাশ হ্‌ওয়ার পর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, বিশেষ করে ফেসবুকে তাকে ঘিরে ব্যাপক একটি প্রচারণা চলছে। অনেকেই দৈনিক ভোরের কাগজের অনেক পুরনো একটি সংবাদের ক্লিপ শেয়ার করে দাবি করছেন-বিএসইসির নতুন চেয়ারম্যান একজন ঋণ খেলাপি। তাদের বক্তব্য- একজন ‘ঋণ খেলাপি’ বিএসইসির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নেওয়ায় এই বাজার নিয়ে আশাবাদী হওয়ার সুযোগ নেই ইত্যাদি ইদ্যাদি।

অনেকে হয়তো ওই সংবাদটিও পড়ে দেখেননি। শোনা কথার উপর ভিত্তি করে নানা বিরূপ মন্তব্য করে চলেছেন। প্রচারণার এই বিস্তৃতি দেখে মনে হচ্ছে,এর পেছনে সংঘবদ্ধ কোনো গোষ্ঠিও থেকে থাকতে পারে। তারা কিছুটা সফলও হয়তো। অনেক মানুষই এই ‘অপপ্রচারে’ বিভ্রান্ত হচ্ছেন। কারণ ফেসবুকে মন্তব্য দেখে মনে হচ্ছে, কোনো রকম ক্রসচেক ছাড়াই অনেকে প্রচারিত বিষয়টি বিশ্বাস করছেন। ফলে নিয়ন্ত্রক সংস্থার এই নেতৃত্বের প্রতি এক ধরনের নেতিবাচক ধারণা (Perception) তৈরি হচ্ছে।

যে কোনো নিয়ন্ত্রক সংস্থা বা এর নীতি নির্ধারকদের সম্পর্কে স্টেকহোল্ডার বা জনমনে নেতিবাচক ধারণা থাকলে তাদের কাজে সাফল্য বেশ ব্যহত হয়, সে ধারণা যত ভুল বা অসারই হোক না কেন। এই ধরনের ধারণা থাকলে সংস্কারের উদ্যোগ নেওয়া, সেগুলোর বাস্তবায়ন খুবই কঠিন হয়ে পড়ে।

এমন বাস্তবতায় অর্থসূচকের পক্ষ থেকে বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজখবর নেওয়া হয়। প্রাপ্ত তথ্যে দেখা যায়, বিএসইসির নতুন চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলামের বিরুদ্ধে আনা ঋণ খেলাপির অভিযোগটি বস্তুনিষ্ট নয়।

ঋণ গ্রহীতাদের তথ্যভান্ডার বাংলাদেশ ব্যাংকের সেন্ট্রাল ইনফরমেশন ব্যুরো (সিআইবি) সূত্রে জানা গেছে, অধ্যাপক শিবলী রুবায়াইয়াত-উল-ইসলামের রিপোর্ট ক্লিন। অর্থাৎ বর্তমানে তার বিরুদ্ধে ঋণ খেলাপির কোনো তথ্য নেই।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করলে ন্যাশনাল ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক এএসএম বুলবুল অর্থসূচককে বলেন, ঘটনাটা বেশ পুরনো। আমি ঠিক মনে করতে পারছি না। এতোদিনে সম্ভবত ঋণটা খেলাপি নেই।

যোগাযোগ করলে অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলামও অভিযোগটি বস্তুনিষ্ট নয় বলে দাবি করেন। তিনি অর্থসূচককে বলেন, বিষয়টি নিয়ে কারো সন্দেহ থাকলে এভাবে অপপ্রচার না করে বাংলাদেশ ব্যাংকের সিআইবিতে খোঁজ নিতে পারেন। তিনি ঋণ খেলাপি হলে সিআইবিতে তার তথ্য থাকবে।এই তথ্য আড়ালের কোনো সুযোগ নেই।

তিনি আরও বলেন, ঋণ খেলাপি হলে বিএসইসির চেয়পারম্যানের দায়িত্ব তো নয়-ই, তিনি সাধারণ বীমা করপোরেশনের চেয়ারম্যান এবং কোনো ব্যাংকের পরিচালকও হতে পারতেন না।

উল্লেখ, বিএসইসিতে যোগ দেওয়ার আগে তিনি সাধারণ বীমার চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন। ছিলেন বাংলাদেশ পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্টের মালিকানাধীন কমিউনিটি ব্যাংকের ছিলেন পরিচালক। বিদ্যমান আইন অনুসারে, কোনো ঋণ খেলাপির ব্যাংকের পরিচালক হওয়ার সুযোগ নেই।

এই বিভাগের আরো সংবাদ