করোনা চিকিৎসায় ২ হাজার শয্যার অস্থায়ী হাসপাতাল চালু
শুক্রবার, ৫ই জুন, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

করোনা চিকিৎসায় ২ হাজার শয্যার অস্থায়ী হাসপাতাল চালু

চালু হলো দেশের সবচেয়ে বড় কোভিড হাসপাতাল। রাজধানীর বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টারে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং বসুন্ধরা গ্রুপের উদ্যোগে এই হাপাতাল নির্মাণ করা হয়েছে। যেখানে করোনা আক্রান্তদের আইসোলেশন সুবিধাসহ রোগীদের জন্য থাকছে আইসিউ সুবিধা।

আজ রোববার (১৭ মে) দুপুরে এই হাসপাতালের কার্যক্রম উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

এ সময় তিনি বলেন, এখানে অত্যাধুনিক মোট ২ হাজার ১৩ টি আইসোলেটেড শয্যা রয়েছে। এর মধ্যে ৭১টির সঙ্গে অক্সিজেন সিলিন্ডার যুক্ত করা রয়েছে। এ ছাড়া এখানে আরও অন্তত ৪০০টি পোর্টেবল অক্সিজেন সিলিন্ডার রয়েছে। নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ) ব্যবস্থাসহ এই হাসপাতালটি উন্নত দেশের কোভিড অস্থায়ী হাসপাতালের থেকে কোনো অংশেই পিছিয়ে নেই।

জাহিদ মালেক বলেন, বসুন্ধরার এই আইসোলেশন হাসপাতালের দুই হাজারের বেশি বেডের মাধ্যমে এখন আমাদের কাছে প্রায় সাড়ে তিন হাজার আইসোলেশন বেড প্রস্তুত আছে। এছাড়া অন্য করোনা হাসপাতাল মিলিয়ে শুধু ঢাকাতেই এখন প্রায় সাড়ে ছয় হাজার বেড প্রস্তুত।

তিনি বলেন, করোনায় আক্রান্তদের ৮৫ শতাংশই ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ এবং গাজীপুর জেলার। বাকি ১৫ শতাংশ অন্য সব জেলা মিলিয়ে। করোনা পরীক্ষায় আমরা ৪০টি ল্যাব প্রস্তুত করেছি। আরও ১৫টি ল্যাব প্রস্তুতের কাজ চলছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দেওয়া বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী আশঙ্কাপ্রকাশ করে বলেন, আমরা এখনো শঙ্কিত, আমরা যখন দেখি যে বিভিন্ন যানবাহনে, বিশেষ করে রিকশায়, সিএনজিতে জটলা পাকায় এবং সেখানে অনেক লোক চলাফেরা করে, আমরা যখন দেখি দোকানে জটলা পাকাচ্ছে, আমরা দেখি শিল্পের সামনে, আমরা দেখি ফেরিঘাটে, তখন আমরা আতঙ্কিত হই যে সংক্রমণ তো বৃদ্ধি পাবে। আপনারা লক্ষ্য করছেন, সংক্রমণ কিছুটা হলেও বেড়েছে। যদি সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ না করা হয় তাহলে এটি বাড়তেই থাকবে।

করোনাভাইরাস থেকে সৃষ্ট কোভিড-১৯ রোগ মোকাবিলায় বিভিন্ন প্রস্তুতির কথা তুলে ধরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ১০ দিনের মধ্যে ২ হাজার চিকিৎসক ও ৫ হাজার ৫৪ জন নার্স নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। আরও নতুন অন্তত পাঁচ হাজার মেডিকেল টেকনোলজিস্ট নিয়োগের কাজ চলমান রয়েছে। দ্রুতই এই টেকনোলজিস্টদের নিয়োগ দেওয়া হবে। এ ছাড়া দেশে এখন প্লাজমা থেরাপির কাজ চলমান রয়েছে। পাশাপাশি রেমডেসিভির ওষুধ এখন দেশেই তৈরি হচ্ছে, যা সরকারের কাছে মজুত করা হচ্ছে।

স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব আসাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব হাবিবুর রহমান খান, বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক নঈম নিজাম প্রমুখ।

অর্থসূচক/কেএসআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ