এজাহারে আ. লীগ নেতাদেরই নাম রয়েছে: এম. কে আনোয়ার
শনিবার, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » জাতীয়
নারায়ণগঞ্জে সাত খুন

এজাহারে আ. লীগ নেতাদেরই নাম রয়েছে: এম. কে আনোয়ার

এম কে আনোয়ার

এম কে আনোয়ার (ফাইল ছবি)

নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের সঙ্গে বিএনপি জড়িত নয়। জড়িত থাকলে তাদের গ্রেপ্তার করুন। তদন্ত এবং মামলার এজাহারে আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গ-সংগঠনের নেতাদের নামই এসেছে- তারাই জড়িত। তাদের বিচার করুন। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) স্থায়ী কমিটির সদস্য এম. কে. আনোয়ার সরকারের উদ্দেশে এসব কথা বলেন।

শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে স্বাধীনতা ফোরাম কেন্দ্রীয় সংসদ আয়োজিত ‘নিরাপত্তা সংকটে নাগরিক জীবন: উত্তরণের উপায়’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশে আনোয়ার বলেন, অবৈধভাবে ক্ষমতায় এসেছেন, দুঃশাসন বন্ধ করুন। তা না হলে আপনাদের বিদায় হবে খুব বেদনাদায়ক।

তিনি বলেন, ফাঁসির আসামিকেও রাষ্ট্রপতির ক্ষমা দেওয়া হয়। দলীয় বিবেচনায় সাড়ে ৭ হাজার মামলা প্রত্যাহার করেছে সরকার। রাজনৈতিক মামলার অজুহাতে প্রধানমন্ত্রীর নামে থাকা ১৫টি মামলাও তুলে নেওয়া হয়েছে। গণহারে মামলা প্রত্যাহারের কারণে আজকে আইন-শৃঙ্খলার এতটা অবনতি হয়েছে। দলীয়করণের মাধ্যমে রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানের মৌলিক স্তম্ভগুলো ধ্বংস করে দিয়েছে সরকার।

বিএনপির এই নেতা বলেন, প্রধান বিচারপতির একটি রায়ের কারণে জনগণ ভোটাধিকার হারিয়েছে। আওয়ামী লীগ সংবিধান এমনভাবে পরিবর্তন করেছে, যেখানে গণভোটের বিধান বিলুপ্ত হয়েছে। বর্তমানে সংবিধান অকার্যকর। এটাকে ছুড়ে ফেলতে হবে।

তিনি আরও বলেন, গত ৭ বছরে উন্নয়নের জন্য যে টাকা খরচ হয়েছে, তা জনগণের কোনো কাজে লাগেনি। যতগুলো কাজ হয়েছে, তা বিনা টেন্ডারে দলীয় এবং অযোগ্য প্রতিষ্ঠানকে দেওয়া হয়েছে।

আনোয়ার বলেন, প্রশাসন আজ ওএসডির কবলে জর্জরিত। প্রশাসনে এমন কিছু লোককে বসানো হয়েছে, যারা দলবাজি ছাড়া কিছু বুঝে না।

সংগঠনের সভাপতি আবু নাসের মোহাম্মদ রহমাতুল্লাহর সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন-বিচারপতি ও সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার আব্দুর রউফ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর অধ্যাপক ড. মাহবুবুল্লাহ, মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন বীর বিক্রম, যুবদলের সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল প্রমুখ।

জেইউ/

এই বিভাগের আরো সংবাদ