আইসোলেশন থেকে পালিয়ে করোনা রোগীর ঈদ কেনাকাটা!

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার আইসোলেশনে থেকে পালিয়ে গিয়ে করোনা আক্রান্ত এক যুবক ঈদের কেনাকাটা করতে যান। এরপর ওই কাপড়ের দোকান লকডাউন করেছে স্থানীয় প্রশাসন।

শনিবার (০৯ মে) সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রবিউল হাসান দোকানটি লকডাউন ঘোষণা করেন।

এর আগে পার্শ্ববর্তী কালীগঞ্জ উপজেলার তুষভান্ডার বাজারের রুমা ক্লথ স্টোরে করোনা পজিটিভ ওই যুবক ঈদের কেনাকাটা করতে যান।

স্থানীয়রা জানান, গাজীপুর ফেরত ওই যুবকের করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে। পরে তার সংস্পর্শে আসা একই পরিবারের পাঁচ সদস্য, একজন নার্স ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালের যক্ষ্মা ও কুষ্ঠ রোগ নিয়ন্ত্রণ সহকারীসহ সাতজন করোনায় আক্রান্ত হন।

করোনা আক্রান্ত ওই যুবক আইসোলেশনে ছিলেন। কিন্তু গতকাল ঈদ কেনাকাটা করার জন্য আইসোলেশনে থেকে পালিয়ে পার্শ্ববর্তী কালীগঞ্জ উপজেলার তুষভান্ডার বাজারে যান। এই খবর ছড়িয়ে পড়লে পুলিশ ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সেখানে গিয়ে দোকানটি লকডাউন ঘোষণা করেন। এছাড়া দোকানটির মালিক ও কর্মচারীদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রবিউল হাসান জানান, কাপড় ব্যবসায়ীসহ তার দোকানের কর্মচারীদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। পরীক্ষার পর বোঝা যাবে তারা আক্রান্ত হয়েছেন কি না। তবে নমুনা রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত দোকান বন্ধ থাকবে।

কেনাকাটা করতে আসা ওই রোগী কোথায় জানতে চাইলে ইউএনও বলেন, ওই রোগী আমাদের উপজেলার না। জানতে পেরেছি তিনি যে দোকানে এসেছিলেন, সেই দোকানদারের জামাই।

অর্থসূচক/কেএসআর