করোনায় আক্রান্ত আরও ১৪ ব্যাংক কর্মকর্তা
মঙ্গলবার, ২রা জুন, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

করোনায় আক্রান্ত আরও ১৪ ব্যাংক কর্মকর্তা

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন আরও ১৪ জন ব্যাংক কর্মকর্তা। তাদের মধ্যে রয়েছে ইসলামী ব্যাংক নীলফামারীর সৈয়দপুর শাখার চারজন, সাউথইস্ট ব্যাংকের খাতুনগঞ্জ শাখার একজন, রূপালী ব্যাংকের দুইজন, অগ্রণী ব্যাংকের দুইজন এবং সোনালী ব্যাংকের ৫ জন।

ব্যাংক কর্মকর্তাদের করোনা শনাক্তের সাথে সাথেই শাখাগুলো লকডাউন ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। এ নিয়ে কোভিড-১৯ এর শিকার হলেন মোট ২৫ ব্যাংক কর্মকর্তা।


অর্থসূচকে প্রকাশিত পুঁজিবাজার ও ব্যাংক-বিমার গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলো এখন নিয়মিত পাওয়া যাচ্ছে আমাদের ফেসবুক গ্রুপ Sharebazaar-News & Analysis এ। প্রিয় পাঠক, গ্রুপটিতে যোগ দিয়ে সহজেই থাকতে পারেন আপডেট।


খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ইসলামী ব্যাংক সৈয়দপুর শাখার ওই চার কর্মকর্তা জ্বর, সর্দি ও গলা ব্যথায় আক্রান্ত ছিলেন। গত ৩০ এপ্রিল তাদের নমুনা সংগ্রহ করে পাঠানো হলে শনিবার (২ মে) রাতে তাদের ফলাফল পজিটিভ আসে। ওই চার কর্মকর্তার মধ্যে একজন দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুরে আছেন। বাকি তিনজনের মধ্যে দুইজন সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালের আইসোলেশনে এবং অপরজন নীলফামারী জেনারেল হাসপাতালেরর আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ইসলামী ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানায়, ২৯ এপ্রিল এই শাখাটি লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।


   প্রিয় পাঠক, করোনাভাইরাস সংক্রান্ত দেশ-বিদেশের নির্বাচিত নিউজ ও টিপস এখন থেকে পাওয়া যাবে আমাদের                   ফেসবুক গ্রুপ Corona: News & Tips এ । গ্রুপটিতে যোগ দিয়ে সহজেই থাকতে পারেন আপডেট


এদিকে সাউথইস্ট ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম কামাল হোসেন জানান, সাউথইস্ট ব্যাংকের চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জ শাখার একজন সিকিউরিটি গার্ড করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তাই গত সপ্তাহ থেকেই শাখাটি লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া গতমাসে বংশাল শাখার দুইজন সিকিউরিটি গার্ড আক্রান্ত হলেও এই মাসে তা খুলে দেওয়া হয়েছে। আক্রান্ত শনাক্ত হওয়ার পর ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন তারা।

নতুনভাবে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যাংক কর্মকর্তাদের মধ্যে রয়েছেন রূপালী ব্যাংকের দুইজন। তাদের মধ্যে একজন উপ-মহাব্যবস্থাপক এবং একজন প্রিন্সিপাল অফিসার পদের কর্মকর্তা। তারা দুজনেই বাসায় থাকা অবস্থায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। ব্যাংকের শাখার সাথে তাদের কোন যোগাযোগ ছিল না।

সোনালী ব্যাংকের ৫ জন কর্মকর্তা নতুনভাবে আক্রান্তদের তালিকায় রয়েছেন। তাদের মধ্যে একজন ব্যাংকের ওয়েজ আর্নার বিভাগ, একজন কিশোরগঞ্জ, একজন রমনা কর্পোরেট ও দুইজন রংপুর বাজার শাখায় কর্মরত আছেন।

অগ্রণী ব্যাংকের সাভার নবীনগর শাখার একজন এবং ওয়াসা ভবন শাখার একজন কর্মকর্তা নতুনভাবে আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

উল্লেখ, গত ২৫ এপ্রিল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হন সোনালী ব্যাংকের রংপুর বাজার শাখার ৪ জন কর্মকর্তা। শাখাটি সেদিন থেকেই বন্ধ রয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এর আগে, গত ২০ এপ্রিল একজন কর্মকর্তার করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ায় রাজধানীর দিলকুশা শিল্প ভবনের সোনালী ব্যাংকের কর্পোরেট শাখা সাময়িক বন্ধ ঘোষণা করা হ‌য়। শাখাটি এখনও বন্ধ রয়েছে।

বেসরকারি মার্কেন্টাইল ব্যাংকের রাজধানীর দারুস সালাম শাখার এক কর্মকর্তার কোভিড-১৯ পজেটিভ আসায় শাখাটির কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।

অন্যদিকে, একজন কর্মকর্তা প্রাথমিক পরীক্ষায় করোনা পজেটিভ আক্রান্ত বলার প্রেক্ষিতে গত ৯ এপ্রিল থেকে লকডাউন করা হয় অগ্রণী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ের নিচতলায় অবস্থিত প্রধান শাখা। তবে ১১ এপ্রিল একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ব্যাংকটি জানায় চুড়ান্ত রিপোর্টে করোনা নেগেটিভ এসেছে ওই কর্মকর্তার। তাই লকডাউন প্রত্যাহার করে পুনরায় কার্যক্রম শুর হয়েছে অগ্রণী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে।

গতকাল ৩ মে (রোববার) রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক (রাকাব)-এর নিলফামারীর ডিমলা ডাঙ্গারহাট শাখার একজন কর্মকর্তা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে শাখাটির লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

এছাড়াও, সিটি ব্যাংকের একজন কর্মকর্তা গত সপ্তাহে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। আক্রান্ত ব্যাংকারদের মধ্যে সিটি ব্যাংকের কর্মকর্তা মুজতবা শাহরিয়ারই মৃত্যুবরণ করা প্রথম ব্যক্তি।

অর্থসূচক/জেডএ/কেএসআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ