আগামি সপ্তাহে ফিরছে ওয়াটা ক্যামিক্যালস

wata chemical, ওয়াটা কেমিক্যাল
ওয়াতা কেমিক্যালস লোগো
wata chemical, ওয়াটা কেমিক্যাল
মূল মার্কেটে ফিরছে ওয়াটা কেমিক্যালস

প্রায় সাড়ে তিন বছর ওভার দ্যা কাউন্টার (ওটিসি) নামের বিকল্প মার্কেটে থাকার পর মূল মার্কেটে ফিরছে ওয়াটা ক্যামিক্যালস লিমিটেড। বৃহস্পতিবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পরিচালনা পর্ষদ কোম্পানিটিকে মূল মার্কেটে ফিরিয়ে আনার নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে।আর আগামি সপ্তাহেই মূল মার্কেটে লেনদেন শুরু হতে পারে এ কোম্পানির শেয়ার লেনদেন। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বিভিন্ন কারণে ২০১০ সালে কোম্পানিটিকে ওটিসিতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল। মূল মার্কেটে ফেরার সব শর্ত পূরণ করা গত বছর নিয়ন্ত্রক সংস্থা কোম্পানিটিকে মূলবাজারে লেনদেনের সুযোগ দেওয়ার আবেদন অনুমোদন করে। কিন্তু রহস্যজনক কারণে ডিএসই নানা অজুহাত দেখিয়ে প্রক্রিয়াটিকে বিলম্বিত করতে থাকে। অবশেষে অনুমোদনের প্রায় এক বছর পর কোম্পানিটিকে মূল বাজারে ফিরিয়ে আনছে ডিএসই।

এ বিষয়ে ডিএসই’র পরিচালক শাকিল রিজভী অর্থসূচককে বলেন, ডিএসই’র পরিচালনা পর্ষদের বৈঠকে ওয়াটা ক্যামিক্যালসকে মূল মার্কেটে আনার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এখন ম্যানেজমেন্টের সিদ্ধান্তের আলোকে কোম্পানিটি যে কোনো দিন মূল মার্কেটে আসতে পারে।

এদিকে লেনদেনের বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ডিএসই’র একজন কর্মকর্তা অর্থসূচককে বলেন, আগামি সপ্তাহের যে কোনো দিন ডিএসই’র মূল মার্কেটে ওয়াটা কেমিক্যালের শেয়ার লেনদেন হতে পারে। তবে দিনটি কোম্পানির সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে চূড়ান্ত করা হবে।

জানা গেছে, গত বছরের ৯ জুলাই অনুষ্ঠিত বিএসইসি’র ৪৮৫তম কমিশন সভায় ওয়াটা ক্যামিক্যাল লিমিটেডকে মূল মার্কেটে ফিরিয়ে আনারবিষয়ে কমিশন সিদ্ধান্ত হয়। এর আলোকে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জকে (ডিএসই) বিষয়টি জানানো হয়। কারণ হিসেবে কমিশনের পক্ষ থেকে বলা হয়, কোম্পানিটি নিয়মিত এজিএম, বিনিয়োগকারীদের লভ্যাংশ প্রদানসহ অন্যান্য বিষয় পরিপালন করছে। ফলে কোম্পানিটির মূল মার্কেটে তালিকাভুক্তির ক্ষেত্রে আর বাধা নেই।

গত ২০০৯ সালের ৬ সেপ্টেম্বর ওটিসি মার্কেট গঠনের পর বিভিন্ন কারণে অনেকগুলো কোম্পানিকে সেখানে পাঠানো হয়। প্রতিবছর এজিএম না করা, ডিভিডেন্ড ঘোষণা না করা, আর্থিক প্রতিবেদন সময় মত বা কখনোই জমা না দেওয়া, কোম্পানির উৎপাদন বন্ধ হয়ে যাওয়া অথবা কোম্পানির শেয়ার ডিমেট না হওয়া ইত্যাদি কারণে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কোম্পানিকে ওটিসিতে পাঠিয়ে দেয়া হয়। তবে এসব বাধ্যতামূলক নিয়ম পরিপালনের মাধ্যমে মূল মার্কেটে ফেরার অনুমোদন পেয়েছে ওয়াটা ক্যামিক্যাল।

জানা গেছে, ২০০৯ সালে ওটিসির যাত্রা শুরু হবার পর ২০১০ সালে ওটিসি মার্কেটে তালিকাভুক্তকোম্পানির সংখ্যা দাঁড়ায় ৮০টি। পরবর্তী সময়ে বেসরকারি খাতের ইউনাইটেড কমার্শিয়ালব্যাংক লিমিটেড (ইউসিবিএল) মামলা-সংক্রান্ত জটিলতা কাটিয়ে বিনিয়োগকারীদের লভ্যাংশদেওয়ায় সেটি মূল বাজারে ফিরে আসে। এতে ওটিসি বাজারে কোম্পানির সংখ্যা দাঁড়ায় ৭৯টি।পরে আরও ১১ কোম্পানি মূল বাজারে ফিরিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নেয় বিএসইসি। এ সময়ের মধ্যেএকটি কোম্পানি তালিকাচ্যুত হয়েছে। সর্বশেষ ওয়াটা ক্যামিক্যালকে মূল মার্কেটেফিরিয়ে আনা হয়েছে। বর্তমানে এ মার্কেটে ৬৭টি কোম্পানি রয়েছে।

জিইউ