সাংবাদিককে চিকিৎসা না দেওয়ায় হাইকোর্টের রুল

high-court
বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট (ফাইল ছবি)
হাইকোর্ট
হাইকোর্ট

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সাংবাদিককে চিকিৎসা প্রদান না করায় রামেকের ইন্টার্ন ডাক্তারদের বিরুদ্ধে রুল জারী করেছে হাইকোর্ট। রুলে হাইকোর্ট জানতে চেয়েছেন  তাদের বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

২৫মে’র মধ্যে স্বাস্থ্যঅধিদপ্তরের মহাপরিচালক ও রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালককে এ ব্যাপারে নিজেদের বক্তব্য হাইকোর্টকে অবহিত করতে বলা হয়েছে।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানীয় এক সাংবাদিককে চিকিৎসা দিতে অস্বীকৃতি জানানোর ঘটনায় প্রকাশিত সংবাদ আমলে নিয়ে বৃহস্পতিবার বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি এবিএম আলতাফ হোসেনের হাইকোর্ট বেঞ্চ স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে এ আদেশ দেন। আদেশের পাশাপাশি আদালত রুলও জারি করেন।

রুলে ‘কোন ক্ষমতাবলে সংশ্লিষ্ট ইন্টার্ন চিকিৎকরা চিকিৎসা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন এবং চিকিৎসা দিতে অস্বীকৃতি জানানোয় তাদের চিকিৎসক হিসেবে লাইসেন্স প্রদানেবিরত রাখার নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না’ তা জানতে চেয়েছেন
হাইকোর্ট।

২সপ্তাহের মধ্যে স্বাস্থ্য সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক, রাজশাহীর জেলা প্রশাসক, জেলা পুলিশ সুপার ও বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিলের (বিএমডিসি) চেয়ারম্যানকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

শুনানিতে রাষ্ট্রপক্ষে উপস্থিত ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ রায়।

বুধবার স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকার এক ফটোসাংবাদিক গুলবার আলী জুয়েল চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে গেলে ইন্টার্ন চিকিৎসকরাজানিয়ে দেন সেখানে সাংবাদিকের কোনো চিকিৎসা হবে না। ডাক্তারদের এমন আচরণের পর চিকিৎসা না নিয়েই হাসপাতাল ছাড়তে বাধ্য হন জুয়েল।

এ ঘটনার পর একই দিন সন্ধ্যায় অর্থসূচক’‘রামেক হাসপাতালে সাংবাদিকের চিকিৎসা করেননি ডাক্তাররা’ নামে শীর্ষক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

 

 

সাকি/