রংপুরে এরশাদের মুক্তির দাবিতে হরতাল চলছে
শনিবার, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » রংপুর

রংপুরে এরশাদের মুক্তির দাবিতে হরতাল চলছে

রংপুর হরতাল ২সাবেক রাষ্ট্রপতি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে জাতীয় পার্টির  দু’গ্রুপের ডাকে রংপুর বিভাগে বুধবার সকাল ছয়টা থেকে শুরু হওয়ায় টানা ৪৮ ঘণ্টার হরতাল চলছে।

বুধবার ও বৃহস্পতিবার এরশাদপন্থী আসিফ-করিম ভরসা-মানিক-মোস্তফা এবং রওশনপন্থী রাঙ্গা-নান্টু-কাদেরী গ্রুপ বুধবার সকাল সন্ধ্যা হরতালের ডাক দেয়।

একদিকে এরশাদ মুক্তির জন্য জাতীয় পার্টির হরতাল হরতাল অন্যদিকে আঠারো দলের চতুর্থ দফার অবরোধে পুরো যেন স্থবির হয়ে আছে। সাইকেল-রিক্সাও আজ রাজপথে নেই। দূরপাল্লার ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। কিছু খাবার ও ঔষধের দোকান খোলা থাকলেও অধিকাংশ দোকানপাঠ বন্ধ রয়েছে। পায়ে হেটেই কর্মস্থলে ছুটছে নগরবাসী।

হরতালে দলীয় নেতাকর্মীদের চেয়ে সাধারন মানুষের অংশগ্রহন বেশি দেখা গেছে।  রাজপথে থাকা এরশাদভক্তদের সাথে কথা হলে তারা জানান, আমরা রাঙ্গা-মোস্তফার গ্রুপ বুঝি না। আমরা এরশাদের মুক্তি চাই।

এদিকে হরতালে বুধবার জাহাজ কোম্পানি মোড়ে সমাবেশ করে সদ্য বিলুপ্ত জেলা ও মহানগর কমিটির সভাপতি প্রেসিডিয়াম সদস্য মসিউর রহমান রাঙ্গা রংপুরবাসীকে হরতাল স্বতস্ফুর্তভাবে সহযোগিতা করার জন্য কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, কোনো শক্তিই এরশাদকে আটকে রাখতে পারবে না। জাতীয় পার্টি থেকে বিতাড়িত একটি কুচক্রী মহল ফের দলে ফেরার চেষ্টা করে জাতীয় পার্টিতে বিভেদ তৈরি করছে।

অন্যদিকে সদ্য এরশাদ ঘোষিত জাতীয় পার্টির জেলা ও মহানগরের নেতাকর্মীরা নগরীর খামারপাড়া মোড়ে অবস্থান নিয়ে সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ শেষে হরতালের সমর্থনে একটি বিক্ষোভ মিছিল করে। পরে সিটি বাজারের সামনে এরশাদপন্থী মহানগরের সদস্য সচিব এস এম ইয়াসিরের নেতৃত্বে মিছিল বের হলে পুলিশ তাতে বাঁধা দেয়।

প্রসঙ্গত, এরশাদের পৈত্রিক নিবাস স্কাইভিউ লাঙ্গলভবনে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এরশাদের মুক্তির দাবিতে রংপুর বিভাগের আট জেলায় বুধ ও বৃহস্পতিবার দুই দিন ৪৮ ঘণ্টার শান্তিপুর্ণ হরতালের ঘোষণা দেন এরশাদ ঘোষিত কমিটির জেলা আহ্বায়ক প্রেসিডিয়াম সদস্য করিম উদ্দিন ভরসা।

পুলিশ ও দলীয় সূত্র জানায়, উভয় গ্রুপের হরতালের ডাক দেয়ায় নগরীর টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে। একপক্ষ সেন্ট্রাল রোডের পার্টি অফিস এলাকায় এবং অপর পক্ষ এরশাদের পৈত্রিক নিবাস লাঙ্গল ভবন, শাপলা চত্ত্বর ও খামার মোড় এলাকায় অবস্থান নিয়ে আছে। যে কোনো ধরনের সংঘর্ষ ও নাশকতা এড়াতে নগরীতে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর নজরদারী ও সতর্কতা বাড়ানো হয়েছে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ