করোনাঃ রাজধানীতে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ যে ৭ এলাকা
বৃহস্পতিবার, ২৮শে মে, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

করোনাঃ রাজধানীতে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ যে ৭ এলাকা

দেশে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। এখন পর্যন্ত এই সংক্রমণের একটি বড় অংশই হয়েছে রাজধানী ঢাকায়। এর মধ্যে ৫টি এলাকায় তুলনামূলকভাবে বেশি সংখ্যক মানুষের করোনা শনাক্ত হয়েছে।আর এ কারণে রাজধানীতে এই এলাকাগুলো সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

এলাকাগুলো হচ্ছে-মিরপুর,ধানমন্ডি,বাসাবো,ওয়ারি,মোহাম্মদপুর,গুলশান,উত্তরা,

গতকাল বুধবার (৮ এপ্রিল)দেশে আরও ৫৪ জন নভেল কনোরাভাইরাসে (কোভিড-১৯) সংক্রমিত হয়েছেন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২১৮ জনে। এরমধ্যে ১২৩ জনই ঢাকা সিটিকর্পোরেশন এলাকার।এছাড়া সিটি কর্পোরেশনের বাইরে জেলার চারটি উপজেলায় আক্রান্তের সংখ্যা আরও ছয় জন।

মিরপুর

করোনায় আক্রান্তের সংখ্যার দিক দিয়ে ঢাকা সিটি কর্পোরেশন এলাকায় সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ মিরপুর। এই এলাকায় ২৭ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। এরমধ্যে টোলারবাগে ১০ জন, মিরপুর-১ নম্বরে ৮ জন,শাহ আলীবাগ, মিরপুর-১০ ও মিরপুর-১১ নম্বরে ২ জন করে মোট ৬ জন এবং পীরেরবাগ,মিরপুর-১৩ ও কাজীপাড়ায় একজন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

ধানমন্ডি

রাজধানীতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ করোনায় আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে ধানমন্ডি এলাকায়। এখানে ১২ জনের দেহে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে।

বাসাবো ও ওয়ারী

করোনায় আক্রান্তের সংখ্যার দিক থেকে বাসাবো এবং ওয়ারীর অবস্থান তিন নাম্বারে। দুটি জায়গাতেই ৯ জন করে মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

মোহম্মদপুর এলাকা

মোহাম্মদপুর এলাকার মোট ৮ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে মোহাম্মদপুরে ৬ জন,আদাবর ও বছিলায় ১ জন করে আক্রান্ত হয়েছেন।

গুলশান ও উত্তরা

আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে ঝুঁকি বিবেচনায় পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে গুলশান ও উত্তরা। এই এলাকা দুটিতে ৬ জন করে মোট ১২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

এছাড়া যাত্রাবাড়ি ও লালবাগে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ জন করে আক্রান্ত হয়েছেন মোট ১০ জন।

অন্যদিকে, সোয়ারিঘাট ও বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় ৩ জন করে ৬ জন; গ্রীনরোড, চকবাজার, বাবুবাজার, ইসলামপুর, পুরানাপল্টন ও তেজগাঁওয়ে ২ জন করে মোট ১২ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

এছাড়া আদাবর,সেন্ট্রালরোড,বুয়েট এলাকা,শাহবাগ,হাজারীবাগ,উর্দুরোড, লক্ষ্মীবাজার, নারিন্দা, কোতোয়ালী, বংশাল, ইস্কাটন, বেইলি রোড, মগবাজার, রামপুরা,শাজাহানপুর, বাড্ডা, নিকুঞ্জ ও মহাখালীতে ১ জন করে মোট ১৯ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

দেশে গত ৮ মার্চ প্রথম ১ জন করোনায় আক্রান্ত শনাক্ত হয়। এক মাসের ব্যবধানে ৮ এপ্রিল এটি বেড়ে হয়েছে ২১৮ জনে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ