ছবি তোলার পর ত্রাণ কেড়ে নিলেন চেয়ারম্যান!
সোমবার, ২৫শে মে, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

ছবি তোলার পর ত্রাণ কেড়ে নিলেন চেয়ারম্যান!

করোনায় অসহায় ও কর্মহীন ২৬ পরিবারের মধ্যে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করছিলেন চট্টগ্রামের হাটহাজারীর এক ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান। ত্রাণ বিতরণকালে ছবি তোলার পর ২৬ পরিবারের কাছ থেকে সেই ত্রাণসামগ্রী কেড়ে নিয়েছেন বলে ওই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনার প্রতিবাদ করতে গিয়ে চেয়ারম্যান ও তার লোকজনের হাতে মারধরের শিকার হয়েছেন অসহায় পরিবারের সদস্যরা, এমন অভিযোগও এসেছে।

সোমবার (৬ এপ্রিল) দুপুরে হাটহাজারী উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়ন পরিষদে এ ঘটনা ঘটে।

মারধরের শিকার পরিবারগুলো এ ঘটনার জন্য দায়ী করেছেন স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আবছারকে। অভিযুক্ত নুরুল আবছার হাটহাজারী উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা হিসেবে পরিচিত। তার বিরুদ্ধে প্রকল্পের টাকা আত্মসাৎ এবং নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে।

মারধরের আহত কয়েকজন জানান, সোমবার সকালে ত্রাণ দেওয়ার কথা বলে শতাধিক ব্যক্তিকে ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে যান চেয়ারম্যান। এ সময় চেয়ারম্যান নুরুল আবছার ও তার লোকজন ত্রাণ দেওয়ার কথা বলে ছবি তোলেন।

ছবি তোলার পর চেয়ারম্যানের ছোট ভাই মিজানুর রহমান টিপু ও তার লোকজন বিতরণ করা ত্রাণগুলো কেড়ে নেয়। এর প্রতিবাদ তারা সবার ওপর হামলা করে।

হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুহুল আমিন জানান, মির্জাপুরের চেয়ারম্যান ত্রাণের কথা বলে লোকজনকে পরিষদে নিয়ে যান। তাদের ত্রাণ দেওয়ার পর তা আবার কেড়ে নেন। অসহায় ২৬ পরিবারের লোকজন উপজেলা পরিষদে এসে কান্নাকাটি করতে থাকেন। পরে সরকারের পক্ষ থেকে তাদের ত্রাণ দেওয়া হয়।

অর্থসূচক/কেএসআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ