ত্রাণের চাল নিয়ে দুর্নীতি, প্রতিবাদ করায় সাংবাদিককে পেটালো ছাত্রলীগ নেতা
সোমবার, ২৫শে মে, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

ত্রাণের চাল নিয়ে দুর্নীতি, প্রতিবাদ করায় সাংবাদিককে পেটালো ছাত্রলীগ নেতা

দেশব্যাপী করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় নিম্নআয়ের মানুষকে সহযোগিতা করতে ভোলার বোরহানউদ্দিনে জেলেদের জন্য এক মণ করে চাল বরাদ্দ থাকলেও ১৫ কেজি করে দেয়ায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ করে দুর্নীতির নিউজ করায় সাংবাদিক সাগরকে মারধর করেছে ছাত্রলীগ নেতা নাবিল।

আজ মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) সকালে সাংবাদিক সাগরকে ডেকে নিয়ে প্রকাশ্যে বাজারের মধ্যে এই নির্যাতন করেন। এবং তা ভিডিও ধারণ করা হয়।

মারধরের বিষয়ে জানতে চাইলে সাংবাদিক সাগর চৌধুরী বলেন, বড় মানিকা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জসিমউদ্দিন হায়দার ইউনিয়নের জেলেদের ১ মণ করে চাল দেওয়ার কথা, কিন্তু চাল দেওয়া হচ্ছে মাত্র ১৪-১৫ কেজি করে। বিষয়টা আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানাই এবং চেয়ারম্যানের কাছে জানতে চাই কেন চাল কম দিচ্ছেন? এরই জের ধরে তার ছেলে ঢাকা ইউনিভার্সিটির ছাত্র নাবিল আমাকে মারধোর করেন।

তিনি বলেন, এরপর ছাত্রলীগ কর্মী নাবিল আমাকে ভিপি নুরের হত্যার হুমকির ভিডিও দেখিয়ে বলে, আমি ভিপি নুরকে গুনিনা, আর তুমি তো কোথাকার সাংবাদিক। একথা বলতে বলতে আমাকে প্রচন্ড রকম মারধর করে এবং মোবাইল ছিনতাইকারী হিসেবে অপবাদ দেয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বোরহানউদ্দিনের এক সাংবাদিক নেতা বলেন, চেয়ারম্যান জসিম হায়দারের বিরুদ্দে নিউজ করায় এই নির্যাতন করা হয়েছে। এমনকি নির্যাতনের পর সাংবাদিক সাগর বোরহানউদ্দিন থানায় অভিযোগ দিতে যাওয়ার সময় জসিম হায়দারের লোকজন তাকে থানায় এবং বোরহানউদ্দিন হাসপাতালে যেতে দেননি। পরবর্তিতে তিনি ভোলা সদর হাসপাতালে এসে ভর্তি হন।

এদিকে সাগর চৌধুরীর ওপর হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন ও বাংলাদেশ অনলাইন প্রেসক্লাবসহ অন্যান্য সাংবাদিক সংগঠন। তারা এই ঘটনার মূলহোতা নাবিলকে অবিলম্বে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূল শাস্তি দাবি করছেন।

উল্লেখ্য, নাবিল হায়দার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করে, কিছুদিন আগে সে ডাকসু ভিপি নুরকে প্রকাশ্যে হত্যার হুমকি ও তার সহযোদ্ধা শাকিলের উপর অতর্কিত হামলা করেন।

অর্থসূচক/এমআরএম/এমএস

এই বিভাগের আরো সংবাদ