পুরো হোটেল রিজার্ভ করে কোয়ারেন্টাইন, সঙ্গে ২০ উপপত্নী
শনিবার, ৩০শে মে, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page
থাইল্যান্ডের রাজার কাণ্ড

পুরো হোটেল রিজার্ভ করে কোয়ারেন্টাইন, সঙ্গে ২০ উপপত্নী

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে সেলফ কোয়ারেন্টাইনে গেছেন থাইল্যান্ডের রাজা মহা ভাজিরালংকর্ন। আর তার জন্যে জার্মানিতে একটি বিলাসবহুল হোটেলের পুরোটাই ভাড়া করেছেন তিনি। তবে কোয়ারেন্টাইন বা আইসোলেশন বললেও তিনি কিন্তু একা নন ওই হোটেলে। সঙ্গে আছেন ২০ জন সুন্দরী উপপত্নী।

‘আইসোলেশনে’ ৬৭ বছর বয়সী থাই রাজার সঙ্গে কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ কর্মচারীরাও আছেন। তবে তার স্ত্রী সঙ্গে আছেন কি না,তা জানা যায়নি।

শুরুর দিকে রাজার সঙ্গে শতাধিক কর্মচারী ছিলেন গ্র্যান্ড হোটেল সোনেনবিচল নামের ওই হোটেলে। পরে কয়েকজনকে রেখে বাকী সবাইকে থাইল্যান্ডে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

রাজার এমন কাণ্ডে থাইল্যান্ড জুড়ে সমালোচনার ঝড় বইছে। বিশেষ করে নেটিজেনরা সোস্যাল মিডিয়ায় তুমুল সমালোচনা করছে বিষয়টি নিয়ে।ইতিমধ্যে দেশটির নাগরিকরা টুইটারে #Whydoweneedaking হ্যান্ডলে জনমত গড়ে তোলার চেষ্টায় নেমেছেন।

থাইল্যান্ডে রাজার বিরুদ্ধে কেউ অপমান ও সমালোচনা করলে আইনে তাকে ১৫ বছরের জেল শাস্তি দেওয়ার বিধান তাকা সত্ত্বেও তা উপেক্ষা করে চলে সমালোচনা ও নিন্দা।

উল্লেখ, বিশ্বের অনেক দেশের মত থাইল্যান্ডেও করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে। ইতিমধ্যে দেশটিতে ১ হাজার ৩৮৮ জনের করোনা ধরা পড়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে সাতজনের। দেশটিতে প্রাণঘাতী ভাইরাস নিয়ে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে, মালয়েশিয়ার রাজা ও রানী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে কোয়ারেন্টাইনে যাওয়ার ঘোষণার দেওয়ার পর পরই থাইল্যান্ডের রাজাও এমন সিদ্ধান্ত নেন। মালয়েশিয়ার রাজপ্রাসাদের ৭ জন কর্মচারির দেহে করোনা শনাক্ত হওয়ার পর রাজা-রানী কোয়ারেন্টাইনে যান। তবে থাই রাজপ্রাসাদে কেউ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বলে কোনো তথ্য মিলেনি।

গত ফেব্রুয়ারি মাস থেকে রাজা মহা ভাজিরালংকর্নকে জনসম্মুখে দেখা যায়নি। পিতা রাজা ভূমিবলের মৃত্যুর পর ২০১৬ সাল থেকে সিংহাসনে আসীন ভাজিরালংকর্ন। তবে পিতার জনপ্রিয়তার ধারেকাছেও নেই তিনি। বরং দেশজুড়ে তিনি যথেষ্ট বিতর্কিত।

এই বিভাগের আরো সংবাদ