ভৈরবে দরিদ্রদের মধ্যে খাদ্য বিতরণ
সোমবার, ২৫শে মে, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » ঢাকা
মোস্তাফিজ আমিন, স্টাফ রিপোর্টার, ভৈরব॥

ভৈরবে দরিদ্রদের মধ্যে খাদ্য বিতরণ

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে সরকারী ও ব্যক্তি উদ্যোগে দেড় হাজারেরও বেশী দরিদ্রের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল শনিবার রাতে দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রাণালয় থেকে প্রাপ্ত বরাদ্ধের খাদ্য সামগ্রী উপজেলা পরিষদ মিলনায়তন ও বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এবং পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাবিবুল্লাহ নিয়াজের ব্যক্তিগত অর্থায়নে তার নিজ ওয়ার্ডের মানুষদের মাঝে এইসব খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

উপজেলা প্রকল্প বায়স্তবায়ণ কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানাযায়, শুক্রবার রাতে সরকারী বরাদ্ধের চাল, ডাল ও আলু বিতরণ করা হয়। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মো: সায়দুল্লাহ মিয়া ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লুবনা ফারজানা এই বিতরণ কাজের উদ্বোধন করেন। এ সময় উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ণ কর্মকর্তা মো: জিল্লুর রহমান রাশেদসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধনকালে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মো: সায়দুল্লাহ মিয়া বলেন, দেশবাসীর এই দুর্যোগে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা দ্রুততম সময়ে জনগণের মধ্যে এই ত্রাণসামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন। পর্যায়ক্রমে আরও বরাদ্ধ আসবে। আপনারা শুধু ধৈর্য্য ধরে সরকারী সিদ্ধান্তটা মেনে নিজ নিজ ঘরে অবস্থান করেন। এই মহামারি থেকে নিজে নিরাপদে থাকুন এবং আপনার পরিবার পরিজনসহ আশে পাশের লোকজনকে নিরাপদ থাকতে সহায়তা করুণ।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লুবনা ফারজানা তাঁর প্রতিক্রিয়ায় জানান, দরিদ্র কোনো মানুষ না খেয়ে থাকবেন না ইনশাল্লাহ। তবে করোনায় আক্রান্ত হয়ে কাউকে যেনো মারা যেতে না হয়, এই বিষয়ে আপনারা শুধু সতর্ক থাকবেন। সরকারী সিদ্ধান্ত মেনে যার যার বাড়িতে অবস্থান করুণ। বিনা কারণে বাইরে বের হয়ে নিজের এবং অন্যের বিপদের কারণ কেউ যেনো না হন।

এই সময় সরকারী সিদ্ধান্তে সামাজিক দূরত্ব রক্ষা করতে গিয়ে কর্ম হারিয়েছন এমন সাড়ে ৭শত দরিদ্র শ্রমজীবি মানুষদের মাঝে ১০ কেজি চাল, ৫ কেজি আলু ও ২ কেজি করে মশুরডাল বিতরণ করা হয়।

অপরদিকে একই কারণে কর্মহীন হওয়া পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড এলাকার ৮শত দরিদ্র শ্রমজীবি মানুষদের মাঝে নিজস্ব অর্থায়নে ৫ কেজি চাল, ২ কেজি আটা, ১ কেজি আলু, ১ কেজি পেঁয়াজ ও ১ কেজি করে মশুরডাল বিতরণ করেন ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো: হাবিবুল্লাহ নিয়াজ। ভৈরব পৌরসভার মেয়র, বীরমুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট ফখরুল আলম আক্কাছ এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

এই সময় কাউন্সিলর মো: হাবিবুল্লাহ নিয়াজ বলেন, পৌর কাউন্সিলর নয়, আমি মানুষ হিসেবে মানবিক তাড়না থেকে এই খাদ্য সমাগ্রী বিতরণের উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। দিন মজুর শ্রেণির মানুষের বাড়তি কোনো সঞ্চয় থাকে না। তারা দিনে আয় করে দিনে খায়। এই তিনদিন ধরে কাজ না করতে পেয়ে তারা অভাবে পড়ে গেছেন, এই উপলব্ধি থেকে আমি তাদের পাশে দাঁড়িয়েছি।

মেয়র এডভোকেট ফখরুল আলম আক্কাছ বলেন, ধনী-দরিদ্র জনগণ নিয়েই আমাদের সমাজ। বিপদে আপদে বিত্তশালীরা বিত্তহীনদের পাশে দাঁড়াবেন, এটাই সমাজ ও রাষ্ট্র প্রত্যাশা করে। তিনি কাউন্সিলর হাবিবুল্লাহ নিয়াজের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, এই দুর্যোগে সমাজের ধনীশ্রেণির লোকজন এমনি করে গরীবদের পাশে দাঁড়ালে তাদের খাদ্যের চাহিদা পূরণ হবে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ