করোনা আক্রান্ত রোগীদের ঔষধ নিয়ে কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা?
মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই, ২০২০
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

করোনা আক্রান্ত রোগীদের ঔষধ নিয়ে কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা?

করোনার মরণ থাবায় তলিয়ে যাচ্ছে বিশ্ব। দিনকে দিন মৃত্যু হার বেড়েই চলেছে। আক্রান্তের সংখ্যাও চলছে বেড়েই।  কোয়ারেন্টাইন ও আইসোলেশনে সমগ্র বিশ্ব। তবুও এরমধ্যে আশার বাণী শুনা যাচ্ছে কিছুদিন যাবত।

করোনা ভাইরাসের ঔষধ নিয়েও চলছে নানা সমালোচনা। কিন্তু আদৌও কী এই ভাইরাসের কোন ঔষধ তৈরি হয়েছে কী? নাহ এখনো হয়নি। তবে পার্শ-প্রতিক্রিয়া দূরীকরণে ম্যালেরিয়ার ঔষধকেই আপাতত দেয়া যাবে বলছেন বিশেষজ্ঞরা। চলুন তবে জেনে নেই কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

ক্রিটিক্যাল কেয়ার বিশেষজ্ঞ সৌতিক পণ্ডার মতে, ‘ক্লোরোকুইনের মতো ম্যালেরিয়ার ওষুধে ভাইরাস মারারও ক্ষমতা রয়েছে, আমরা বহুদিন ধরেই জানি সে কথা। চিনে যখন আচমকা মহামারী লেগে গেল, তখন এই ওষুধ দেওয়া হয়েছে। কিছু উপকারও হয়েছে তাতে। তবে এখনও পর্যন্ত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার যে গাইডলাইন মেনে চলা হচ্ছে, তাতে কোথাও এর রুটিন ব্যবহারের কথা বলা নেই। আর অন্যান্য অ্যান্টিভাইরাল ওষুধ, লোপিনাভির ও রেটোনাভির কম্বিনেশনের সঙ্গে ক্লোরোকুইন দিলে বরং নানা রকম ক্ষতি হতে পারে।

তিনি আরো বলেন, অ্যাজিথ্রোমাইসিন আমরা মোটামুটি নিয়মিত দিই। প্রথমত, ভাইরাসের সঙ্গে অনেক সময় ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ থাকে। কখনও আবার আশঙ্কা থাকে সেকেন্ডারি ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের। সে সব ঠেকাতে এই ওষুধ দিতে হয়। দিতে হয় প্রদাহ কমানোর জন্যও।’

এছাড়া মার্কিন প্রেসিডেন্টের মুখে পাওয়া গেল সুখবর, হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন ও অ্যাজিথ্রোমাইসিনের যুগলবন্দিই নাকি সেই ম্যাজিক ওষুধ, যে করবে মুশকিল আসান।

এই সময়ই ‘ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন’ (এফডিএ) জানাল, না, এতদ্রুত কিছু করা যাবে না। ক্লোরোকুইন-অ্যাজিথ্রোমাইসিন কোন ম্যাজিক ওষুধ নয়। সব ধরনের কোভিড-১৯ রোগীর ক্ষেত্রে তারা কাজ করবে, এমন কথা বলা যায় না। কাজেই এখনও পর্যন্ত যা জানা গিয়েছে, তাতে রুটিনমাফিক এই ওষুধ দেওয়া যাবে না।

অর্থসূচক/এনএম/এমএস

এই বিভাগের আরো সংবাদ