নিম্নআয়ের মানুষদের নিত্যপণ্যসহ নগদ সহায়তা দেবে সরকার
শুক্রবার, ২৯শে মে, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

নিম্নআয়ের মানুষদের নিত্যপণ্যসহ নগদ সহায়তা দেবে সরকার

বিশ্বব্যাপী মহামারি আকার ধারণ করেছে নোভেল করোনা ভাইরাস। যার ফলে স্থবির হয়ে পড়েছে সারা বিশ্বের অর্থনীতি। বিশ্বব্যাপী এই মহামারিতে সবচেয়ে সংকটে পড়েছে নিম্নআয়ের মানুষ। যারা দিন এনে দিন খেয়ে জীবন যাপন করে। তাই সে সব মানুষের পাশে দাঁড়াতে উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

বুধবার (২৫ মার্চ) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বাধীনতা দিবস ও দেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে নিম্নআয়ের মানুষের জন্য জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে সহযোগিতা করার আশ্বাস দেন। সেই অনুযায়ী কাজ করছে দেশের সব জেলা প্রশাসন।

দেশের বেশ কয়েকটি জেলা প্রশাসকের সাথে কথা বলে জানা যায় তারা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ অনুসারে কাজ করছেন। তারা নিম্নআয়ের মানুষদের চাহিদা অনুযায়ী চাল, ডাল, তেলসহ নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করবেন। এ সহায়তা প্রদানের জন্য আলাদা টিম গঠন করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ অনুসারে নিম্নআয়ের মানুষকে কি ধরনের সহায়তা দেওয়া হবে জানতে চাইলে রাজশাহী জেলা প্রশাসক হামিদুল হক জানান, নিম্নআয়ের মানুষকে সহযোগিতা করার জন্য তারা চাল, ডাল, তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য প্রদান করবেন। এছাড়াও প্রয়োজনে অর্থ সহায়তা দেয়া হবে বলে তিনি জানান।

কিভাবে এই সহায়তা প্রদান করা হবে জানতে চাইলে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন বলেন, এই সহায়তা প্রদানের জন্য আলাদা একটি টিম গঠন করা হয়েছে। এর মাধ্যমেই মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়া হবে নিত্যপণ্যসহ এই নগদ সহায়তা। সঠিক ব্যক্তি বাছাই করতে একবারে ঘরে ঘরে গিয়ে এই পণ্য পৌঁছে দেয়া হবে। যারা একেবারে দরিদ্র তারাই শুধু এই সহায়তা পাবেন।

নিম্ন আয়ের মানুষকে এই সহায়তার ব্যাপারে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক ইলিয়াস হোসাইন বলেন, আমরা সিটি কর্পোরেশন এবং উপজেলাগুলোর মাঝে ভাগ করে দিয়ে এই সহায়তা নিম্ন আয়ের মানুষের কাছে পৌঁছে দেব। যাতে গরীবরাই এই সহায়তার অংশ পায় সে ব্যাপারে সর্বোচ্চ নীতি অবলম্বন করা হবে।

কবে থেকে এই সহায়তা প্রদান করা হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কিছু টেকনিক্যাল কাজ বাকি রয়েছে। আর আগেই যদি সবাই জানে তাহলে ফ্রি মাল হিসেবে সবাই ঝাঁপিয়ে পড়বে। তাই কৌশল করেই এই সহায়তা প্রদান করা হবে।

গতকাল বুধবার প্রধানমন্ত্রী তার ভাষণে করোনা ভাইরাসের কারণে কাজ হারানো মানুষের পাশে দাঁড়াতে বিত্তবানদের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, গৃহহীন ও ভূমিহীনদের বিনামূল্যে ঘর, ছয় মাসের খাবার এবং নগদ অর্থ সহায়তা দিবে সরকার। জেলা প্রশাসনকে এ ব্যাপারে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভাষাণচরে এক লাখ মানুষের থাকার ও কর্মসংস্থান উপযোগী আবাসন ব্যবস্থা গড়ে তোলা হয়েছে। সেখানে কেউ যেতে চাইলে সরকার ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। এছাড়া নিম্ন আয়ের ব্যক্তিদের ‘ঘরে-ফের’ কর্মসূচির আওতায় নিজ নিজ গ্রামে সহায়তা প্রদান করা হবে।

এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গার্মেন্টস ও কল কারখানার শ্রমিকদের জন্য ৫ হাজার কোটি টাকা সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা দেন। যা শুধু তাদের বেতন দেয়ার কাজে ব্যবহার করার কথা বলেন।

বিশ্বব্যাপী মহামারি আকার ধারণ করা নোভেল করোনা ভাইরাসে সারাবিশ্বে ২১ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছে। আক্রান্ত হয়েছে প্রায় পাঁচ লাখের কাছাকাছি মানুষ। আর এই করোনায় আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশে এ পর্যন্ত ৫ জন মারা গেছেন আক্রান্ত হয়েছেন ৪৪ জন।

করোনা ভাইরাস থেকে প্রতিরোধে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ জারি করেছে কারফিউ এবং অনেক দেশ লকডাউন জারি করেছে। বিশ্বব্যাপী এই মহামারিতে সবচেয়ে সংকটে পড়েছে নিম্নআয়ের মানুষ। যারা দিন এনে দিন খেয়ে জীবন যাপন করে। দেশব্যাপী লকডাউন এর ফলে বন্ধ হচ্ছে তাদের কর্মক্ষেত্র। ইতিমধ্যে আমাদের দেশে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। বন্ধ করা হয়েছে বাইরে ঘোরাফেরা। ফলে বিভিন্ন জায়গায় জিম্মি হয়ে পড়েছে সাধারণ মানুষ। এতে দেশের বেশিরভাগ নিম্নআয়ের খেটে খাওয়া মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে।

অর্থসূচক/কেএসআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ