ArthoSuchak
শুক্রবার, ৩রা এপ্রিল, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

করোনায় ইতালিতে ঝরল আরও ৬৮৩ প্রাণ

চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে। এরই মধ্যে বিশ্বের অন্তত ১৯৮টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে এই ভাইরাস।

করোনায় সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছেন ইতালিতে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মারা গেছেন আরও ৬৮৩ জন। এ নিয়ে সেখানে করোনায় প্রাণ হারালেন মোট ৭ হাজার ৫০৩ জন। একদিনে দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছে ৫ হাজার ২১০ জন। এ নিয়ে ইতালিতে মোট আক্রান্ত ৭৪ হাজার ৩৮৬। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৯ হাজার ৩৬২ জন।

গত শনিবার ইতালিতে ৭৯৩ জনের প্রাণহানি হয়। এখন পর্যন্ত এটাই যেকোনও দেশের জন্য একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। এমনকি সর্বোচ্চ মৃত্যুর তালিকায় করোনার উৎস চীনকেও ছাড়িয়ে গেছে দেশটি। গত মাসে ইতালির উত্তরাঞ্চলীয় লোমবার্ডি এলাকাতেই প্রথম ভাইরাসটির প্রকোপ শুরু হয়। বর্তমানে সেখানকার হাজার হাজার মানুষকে চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছে হাসপাতালগুলো। সেখানে সহায়তা দিচ্ছেন চীনের মেডিক্যাল বিশেষজ্ঞরা।

এছাড়া ইতালিতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা সরকারি তথ্যের চেয়ে সম্ভবত ১০ গুণ বেশি হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন দেশটির বেসামরিক সুরক্ষা সংস্থার প্রধান অ্যাঞ্জেলো বোরেলি। তিনি বলেছেন, প্রতি দশজন আক্রান্তের মধ্যে হয়তো একজনকে পরীক্ষা করা সম্ভব হয়েছে। সে হিসেবে দেশটিতে প্রায় ছয় লাখ ৪০ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছে বলে আশঙ্কার কথা জানান তিনি।

এদিকে চীন এবং ইতালির পর এখন সবচেয়ে বেশি মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে একদিনেই নতুন করে আরও ১১ হাজার ১৯২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। ফলে এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬৮ হাজার ৫৭১ জন। তবে যুক্তরাষ্ট্রে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর বুধবার ২২৩ জনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছেন মার্কিন কর্মকর্তারা। এনিয়ে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা ৯৪৭ জনে পৌঁছেছে।

এছাড়া স্পেনে এ পর্যন্ত ৫ হাজার ৩৬৭ জন কোভিড-১৯ রোগী চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছেন। এখনও চিকিৎসাধীন ৪০ হাজারের বেশি মানুষ। এদের মধ্যে ৩ হাজার ১৬৬ জনের অবস্থা সঙ্কটাপন্ন বলে জানা গেছে। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৬৫৬ জন। এ নিয়ে সেখানে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ৬৪৭ জন। দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৯ হাজার ৫১৫ জন।

অর্থসূচক/এএইচআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ