ArthoSuchak
শুক্রবার, ৩রা এপ্রিল, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

আতঙ্কে সময় কাটছে শাবনূরের

করোনা ভাইরাস আতঙ্ক এখন বিশ্বজুড়ে। এরই মধ্যে বাংলাদেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত ৩৩ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। জনসমাগম এড়িয়ে চলার পরামর্শও দিয়েছে সরকার। আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে দেশজুড়ে।

করোনা মোকাবেলায় ইতোমধ্যে দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ অনেক অফিস-আদালত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। করোনার প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশের শোবিজ অঙ্গনেও। ইতোমধ্যে বন্ধ করা হয়েছে সব ধরণের শুটিং। পাশাপাশি তারকারাও করোনা নিয়ে নানা পোস্ট দিচ্ছেন তাদের ফেসবুকে। পরামর্শ দিচ্ছেন বাসায় থাকতেও নিয়ম মেনে চলতে।

এদিকে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে অবস্থান করছেন জনপ্রিয় নায়িকা শাবনূর। অন্য সকলের মতো তিনিও সেখানে ঝামেলায় পড়েছেন করোনা ভাইরাসের কারণে। অস্ট্রেলিয়াতে স্থায়ীভাবে থাকেন তিনি। সেখানেই গৃহবন্দি আছেন বলে জানান। দেশের একটি গণমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, সাতদিনে একবার বের হচ্ছি। সেটাও বাসার বাজার করার জন্য। এদিকে সিডনি থেকে মেলবোর্ন যাওয়া-আসা বন্ধ করে দিয়েছে এদেশের সরকার। কোনো ওষুধ এখনো আবিষ্কার হয়নি করোনা ভাইরাসের।

তিনি আরো বলেন, আমি বাসা থেকে তাই বের হচ্ছি না তেমন। আর ডিপার্টমেন্ট স্টোরে খাবারও জলদি শেষ হয়ে যাচ্ছে। সকলে আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে। দেশের মানুষের কথা মনে পড়ছে। রাত-দিন দেশের সকলের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করছি। খবর নিচ্ছি। বাংলাদেশের জনগণ এখনো জানতে পারছে না যে, এটি কতটা ভয়াবহ! সারাবিশ্বে এ রোগের মৃত্যুর হার বেড়েই চলেছে। করোনার কারণে সারা বিশ্বে ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৩ সালে চলচ্চিত্রে আসা শাবনূর ২০১২ সাল পর্যন্ত অভিনয়ে নিয়মিত ছিলেন। অনেক ব্যবসাসফল সিনেমা উপহার দিয়েছেন তিনি। ২০১৩ সাল থেকে অস্ট্রেলিয়াতেই স্থায়ী হন এ অভিনেত্রী। সেখানে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানও গড়ে তোলেন। মাঝে মধ্যেই দেশে আসেন। সবশেষ দেশে এসে গত ২৬শে জানুয়ারি স্বামী অনিক মাহমুদকে তালাক নোটিশ পাঠান। ২০১১ সালের ৬ই ডিসেম্বর অনিক মাহমুদের সঙ্গে আংটি বদল করেন শাবনূর। এরপর ২০১২ সালের ২৮শে ডিসেম্বর বিয়ে করেছিলেন তারা। ২০১৩ সালের ২৯শে ডিসেম্বর আইজান নিহান নামে এক পুত্রসন্তানের মা হন এই নায়িকা। তাকে নিয়ে তিনি এখন অস্ট্রেলিয়াতেই বসবাস করছেন।

অর্থসূচক/এএ/এনএম

এই বিভাগের আরো সংবাদ