হোটেল-বার বন্ধের মতো পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়নি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
বুধবার, ২৭শে মে, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

হোটেল-বার বন্ধের মতো পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়নি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, ‘করোনা ভাইরাসের কারণে এখনও দেশের হোটেল-বার বন্ধের মতো কোনো পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়নি’।

সোমবার (১৬ মার্চ) স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বেসরকারি মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্রগুলোর মানোন্নয়নে সরকারি অনুদান প্রদান অনুষ্ঠানে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

দেশের বারগুলো বন্ধ ঘোষণা করা হবে কি না? জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষামন্ত্রী (ডা. দীপু মনি) স্কুল কলেজগুলো ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করেছেন। বেশিরভাগ বারই হোটেল বেইজ। থ্রি-স্টার, ফাইভ-স্টার হোটেল বন্ধ করব কি না, আপনাদের কাছেই এই প্রশ্ন রাখতে চাই। বার বন্ধের প্রশ্ন তখন আসবে, যখন হোটেল বন্ধ করে দেব, সব ক্লোজ করে দেব। এখনও সেই সিচুয়েশন (অবস্থা) আমাদের আসেনি।’

কুড়িগ্রামের ঘটনায় যে সাব ইন্সেপেক্টর (এসআই) মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর থেকে বিতর্কিত অভিযানে অংশ নিয়েছিলেন, তিনি মদ-গাঁজা সরবরাহ দিয়েছেন বলে গণমাধ্যমে খবর এসেছে। এ বিষয়ে তার বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে কি না? জবাবে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী সবসময় বলেন, আইন সবার জন্য সমান। সরকারি কর্মকর্তা বা সাধারণ নাগরিক সবার জন্য আইন সমান। আমাদের মন্ত্রণালয়ের কাছে তার বিষয়ে সুনির্দিষ্টভাবে কোনো লিখিত অভিযোগ আসেনি। আমরা যতটুকু জানি, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর তদন্ত করে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে। যারা আইন অমান্য করবে তাদের শাস্তি আইন অনুযায়ী হবে।’

করোনার কারণে পুলিশের ট্রেনিংগুলো স্থগিত করা হবে কি না? জবাবে আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘যেখানে যেটা বন্ধ করা উচিত বলে মনে হচ্ছে, সেটি বন্ধ করা হচ্ছে। ট্রেনিং বন্ধ হওয়ার মতো এত ইমার্জেন্সি (গুরুতর) আছে বলে মনে করিনি। এটা আবাসিক ট্রেনিং, আবাসস্থলেই থাকে। এখন পর্যন্ত এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়নি যে সব বাড়ি-ঘরে বসে থাকবে।’

কোয়ারেন্টাইনে থাকা অনেকে বাইরে বের হচ্ছে, অনুষ্ঠানে যোগ দিচ্ছে এ বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কোনো ব্যবস্থা নেবে কি না? জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যেখানেই আইন অমান্য হচ্ছে সেখানেই ব্যবস্থা নিচ্ছে। গাজীপুরের কালীগঞ্জে জনগণই স্বপ্রণোদিত হয়ে একজনকে ধরে নিয়ে ঘরে আবদ্ধ করেছে। সবাই সতর্ক হয়ে গেছে, যারা এ কাজটি করছে তারা নিজেরা এটি বিবেচনায় এনে সতর্ক হবেন বলে আশা করছি।’

এ সময় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা বিভাগের সচিব মো. শহিদুজ্জামান, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের মহাপরিচালক (সচিব) মো. জামাল উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে নতুন করে করোনায় তিনজন আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে আটজন করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। এদের মধ্যে তিনজনই বর্তমানে সুস্থ। দুজন বাড়ি ফিরে গেছেন। এ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে আগামীকাল মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) থেকে সারাদেশের স্কুল-কলেজ, মাদরাসাসহ সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ৩১ মার্চ পর্যন্ত সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে।

অর্থসূচক/এমএস

এই বিভাগের আরো সংবাদ