ArthoSuchak
বুধবার, ১লা এপ্রিল, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

সকালে খালেদা জিয়ার জামিন, বিকেলে প্রত্যাহার

মানহানির অভিযোগে নড়াইলে করা এক মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে দেওয়া স্থায়ী জামিন আদেশ প্রত্যাহার (রিকল) করেছেন হাইকোর্ট।

আজ (১২ মার্চ) সকালে হাইকোর্টের বিচারপতি আবু জাফর সিদ্দিকী ও বিচারপতি এএসএম আব্দুল মবীনের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ স্থায়ী জামিন দিয়ে বিকেলে তা প্রত্যাহার করে নেন। একই সঙ্গে আগামী এপ্রিল মাসে এ বিষয়ে জারি করা রুলের উপর শুনানি করা হবে বলে জানিয়েছেন হাইকোর্ট।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে পুনরায় শুনানির জন্য আবেদন করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সামিরা তারানুম রাবেয়া। খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানিতে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী।

এর আগে সকালে নড়াইলের মানহানির মামলায় জারি করা রুল যথাযথ ঘোষণা করে এক বছরের স্থায়ী জামিন দেন হাইকোর্ট। এরপর ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সামিরা তারানুম রাবেয়া আদালতকে জানান, এ মামলায় খালেদা জিয়া ২০২১ সাল পর্যন্ত জামিনে আছেন। আমরা (রাষ্ট্রপক্ষ) এ মামলায় খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়ে জারি করা রুলের ওপর শুনানি করতে চাই।

তখন আদালত খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়ে পূর্বের জারি করা রুল শুনানি করতে নিজেদের রায় প্রত্যাহার করেন। আদালত বলেন, আমরা এ রুলের ওপর উভয়পক্ষকে শুনবো। এরপর আদালত খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়ে উভয়পক্ষের শুনানি করতে এপ্রিল মাসের প্রথম সপ্তাহের শুনানি হবে বলে দিন নির্ধারণ করেন।

মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের সংখ্যা নিয়ে মন্তব্য করায় মানহানির অভিযোগে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ২০১৫ সালের ২৪ ডিসেম্বর নড়াইল সদর আমলি আদালতে মামলাটি করেন জেলার নড়াগাতী থানার চাপাইল গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান রায়হান ফারুকী ইমাম। ওই মামলায় নড়াইলের আদালতে গত বছরের ৫ আগস্ট খালেদা জিয়ার জামিন নামঞ্জুর হয়। এরপর ওই মামলায় জামিন চেয়ে খালেদা জিয়া ৯ আগস্ট হাইকোর্টে আবেদন করেন, যার ওপর ১৩ আগস্ট শুনানি হয়।

শুনানি শেষে খালেদা জিয়াকে ছয় মাসের জামিন দেন হাইকোর্ট। খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মোট ৩৬ মামলার মধ্যে ৩৪ মামলায় জামিনে আছেন। জিয়া অরফানেজ ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় মোট ১৭ বছরের কারাদণ্ড নিয়ে কারাবন্দি আছেন তিনি।

অর্থসূচক/এএইচআর

এই বিভাগের আরো সংবাদ