ArthoSuchak
সোমবার, ৩০শে মার্চ, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

দুই জঙ্গি আটক: এদের প্রধান টার্গেট নারী!

ধর্মভীরু নারীদের টার্গেট করে দলে ভেড়ানোর জন্য বিভিন্ন ধরনের কার্যক্রম চালিয়ে আসছিল নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের একটি গ্রুপ। আর সেসব নারীদের উগ্রবাদী কার্যক্রমে সম্পৃক্তসহ নাশকতা করে আইন-শৃঙ্খলার অবনতি ঘটানোর চেষ্টা করছিলেন তারা।

শনিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) পাবনার পৃথক দু’টি এলাকায় অভিযান চালিয়ে আনসার আল ইসলামের দুই সদস্যকে আটককের পর এসব তথ্য জানান র‌্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার পুলিশ সুপার (এসপি) মহিউদ্দিন ফারুকী।

আটক দুজন হলেন- সাকিব আল ইমতিহান (২১) ও নাজমুস সাদাত ফাহিম (২০)। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৪৪টি উগ্রবাদী বই, জঙ্গিদের প্রশিক্ষণ সংক্রান্ত ট্রেনিং ম্যানুয়েল, তিনটি মোবাইল ফোনসহ বিভিন্ন ধরনের উস্কানিমূলক লিফলেট উদ্ধার করা হয়।

এসপি মহিউদ্দিন ফারুকী জানান, গত ৩০ জানুয়ারি মুন্সিগঞ্জ ও ১৩ ফেব্রুয়ারি সিলেটে অভিযান চালিয়ে আনসার আল ইসলামের চার আত্মঘাতী সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। সেই সূত্র ধরে ব্যাপক অনুসন্ধানের ভিত্তিতে পাবনায় অভিযান চালিয়ে সাকিব আল ইমতিহান ও নাজমুস সাদাত ফাহিমকে আটক করা হয়।

আটকদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে তিনি জানান, তারা নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের সঙ্গে সরাসরি যুক্ত। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া মোবাইল ফোনে জঙ্গিবাদে সম্পৃক্ততার প্রমাণ পাওয়া গেছে। তারা ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, টেলিগ্রাম ও ম্যাসেঞ্জারে বিভিন্ন গ্রুপের মাধ্যমে জঙ্গিবাদের বিস্তার ঘটাচ্ছিলেন।

তিনি বলেন, গ্রেফতাররা বড় ধরনের নাশকতার পরিকল্পনা করছিলেন। তারা ধর্ম ভীরু সহজ সরল ও শান্তিপ্রিয় নারীদের টার্গেট করে উগ্রবাদী কার্যক্রমে সম্পৃক্তসহ নাশকতা সৃষ্টিতে উদ্ধুদ্ধ করে আসছিলেন। তাদের গত ৩০ জানুয়ারি মুন্সিগঞ্জ সদর থানার দায়ের করা একটি মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

এ জঙ্গি গ্রুপের সঙ্গে জড়িত পলাতক সদস্যদের আটকের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান এসপি মহিউদ্দিন।

অর্থসূচক/এমএস

এই বিভাগের আরো সংবাদ