ArthoSuchak
বুধবার, ৮ই এপ্রিল, ২০২০ ইং
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » App Home Page

জিপির ১০০ কোটি টাকা ফিরিয়ে দিয়েছে বিটিআরসি

অডিট পাওনা দাবির প্রেক্ষিতে গ্রামীণফোনের (জিপি) দেওয়া ১০০ কোটি টাকা পরিশোধের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে টেলিকম খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

মোবাইল অপারেটর গ্রামীণফোন আজ ১৯ ফেব্রুয়ারি, বুধবার ১০০ কোটি টাকা নিয়ে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনে (বিটিআরসি) গিয়েছিল। কিন্তু বিটিআরসি সেই টাকা নেয়নি।  বিটিআরসি পরিস্কারভাবে জানিয়ে দিয়েছে, তারা আদালতের নির্দেশনার বাইরে কিছুই করবে না।

আজ বুধবার রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে গ্রামীণফোনের ভারপ্রাপ্ত হেড অব কমিউনিকেশন হোসেন সাদাত বিটিআরসিকে ১০০ কোটি টাকা পরিশোধের প্রস্তাব এবং তাদের টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার বিষয়টি সাংবাদিকদের জানান।


অর্থসূচকে প্রকাশিত পুঁজিবাজার ও ব্যাংক-বিমার খবর গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলো এখন নিয়মিত পাওয়া যাচ্ছে আমাদের ফেসবুক গ্রুপ Sharebazaar-News & Analysis এ। প্রিয় পাঠক, গ্রুপটিতে যোগ দিয়ে সহজেই থাকতে পারেন আপডেট।


উল্লেখ, বিটিআরসির করা ১২ হাজার ৫৮০ কোটি টাকা পাওনার দাবিতে দুই পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে টানাপোড়েন চরছে। অর্থমন্ত্রণালয়সহ সরকারের নানা পর্যায়ে এটি নিয়ে দেনদরবার ও সালিশি বৈঠক হয়েছে। কিন্তু কোনো সমাধান হয়নি। বিষয় দীর্ঘদিন ধরে আদালতেও আছে।

গত ২৪ নভেম্বর সুপ্রিম কোর্ট গ্রামীণফোনকে নিষেধাজ্ঞা কাটাতে দুই হাজার কোটি টাকা জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন। এ জন্য তিন মাস সময় পেয়েছিল গ্রামীণফোন, যা ২৩ ফেব্রুয়ারি শেষ হওয়ার কথা।


প্রিয় পাঠক, সঞ্চয়, বিনিয়োগ,পুঁজিবাজার, ব্যাংকিং, বীমা, আয়কর, কেনাকাটা ইত্যাদি বিষয়ে আপনাদের জন্য নিয়মিত বিশেষায়িত তথ্য ও টিপস পরিবেশন করছে আমারটাকাডটনেট www.amartaka.net সহজে এসব তথ্য পেতে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন আমাদের ফ্যানপেজে www.facebook/amartaka.net


গত ১৬ জানুয়ারি জিপির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইয়াসির আজমান বিটিআরসির চেয়ারম্যান কিস্তিতে ২ হাজার কোটি টাকা পরিশোধের প্রস্তাব করেন। কিন্তু বিটিআরসি সেই প্রস্তাব দৃঢ়ভাবে ফিরিয়ে দেন। তিনি জানান, আদালত যেহেতু গ্রামীণফোনকে ২ হাজার কোটি টাকা পরিশোধ করার নির্দেশ দিয়েছে, তাই কিস্তিতে টাকা নেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। কিস্তিতে টাকা দিতে চাইলে গ্রামীণফোনকে আদালতের কাছ থেকে অনুমতি আনতে হবে।

তবে একইসঙ্গে তিনি গ্রামীণফোনের টাকা প্রদানের বিষয়টি নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন।এ বিষয়ে তিনি বলেন,তারা (গ্রামীণ কর্তৃপক্ষ)টাকা জমা না দেওয়া পর্যন্ত আমি বিশ্বাস করি না। এই সন্দেহের পেছনে যুক্তি হিসেবে তিনি বার বার প্রতিশ্রুতি দিয়েও গ্রামীণফোন তা রক্ষা করেনি বলে অভিযোগ করেন।

গ্রামীণফোনে সংবাদ সম্মেলন। ছবি-সংগৃহীত

গত ফেব্রুয়ারি কোম্পানিটি সংবাদ সম্মেলন করে জানায়, তারা বিটিআরসিকে ৫৭৫ কোটি টাকা পাওনা পরিশোধে আগ্রহী। বাকি টাকা তারা আদালতের রায়ের পরে দেবেন। বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত রায় হওয়ার সম্ভাবনা আছে।

কিন্তু পরে ওই অবস্থান থেকেও সরে আসে কোম্পানিটি। আজ কোম্পানির পক্ষ থেকে বিটিআরসিকে ১০০ কোটি টাকা পরিশোধের প্রস্তাব দেওয়া হলে নিয়ন্ত্রক সংস্থা ওই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ