বল করলেন মুশফিক

বরাবরই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান হিসেবে পরিচিত মুশফিকুর রহিম। জাতীয় দলের হয়ে শুরু থেকেই আপাদমস্তক ব্যাটসম্যানের তকমা নিয়ে খেলে আসছেন তিনি। সেই মুশফিককেই এবার দেখা গেল বোলারের ভূমিকায়!

চলমান বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) তৃতীয় রাউন্ডের ম্যাচে পূর্বাঞ্চলের বিপক্ষে খেলতে নেমে এখন পর্যন্ত ৩ ওভার বোলিং করেছেন উত্তরাঞ্চলের হয়ে খেলা মুশফিক। যেখানে ১৭ রান খরচায় উইকেট শূন্য রয়েছেন তিনি।

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অবশ্য এর আগেও বোলিংয়ের অভিজ্ঞতা রয়েছে ৩২ বছর বয়সী এই ক্রিকেটারের। এই ফরম্যাটে ১২ ওভার বোলিং করে একটি উইকেট পেয়েছেন মুশফিক। এবার আবারও বল হাতে দেখা গেল জাতীয় দলের এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানকে।

এদিকে এই ম্যাচে পরাজয়ের দ্বারপ্রান্তে রয়েছে মুশফিকদের দল উত্তরাঞ্চল। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত জয়ের জন্য পূর্বাঞ্চলের প্রয়োজন আর মাত্র ২৩ রান। তাদের হাতে রয়েছে ৯টি উইকেট। এক উইকেট হারিয়ে দলের সংগ্রহ ১৮৮ রান। মোহাম্মদ আশরাফুল ৫৯ এবং ইয়াসির আলী ৯৩ রানে অপরাজিত আছেন।

এছাড়া ৫ উইকেটে ১৪৫ রান নিয়ে দিনের খেলা শুরু করে নাঈম ইসলামের নেতৃত্বাধীন উত্তরাঞ্চল। এরপর খেলতে নেমে স্পিনার নাঈম হাসানের বোলিং ঘূর্ণিতে ২৬৯ রানে অলআউট হয় তারা। ফলে পূর্বাঞ্চলের সামনে ২১১ রানের লক্ষ্য নির্ধারিত হয়। ৫২ ওভার বোলিং করে ১০১ রানে ৫ উইকেট শিকার করেন ১৯ বছর বয়সী এই অফ স্পিনার। এছাড়া ৫৮ রান খরচায় ২ উইকেট নেন আরেক স্পিনার সাকলাইন সজীব। উত্তরাঞ্চলের হয়ে ব্যাট হাতে সর্বোচ্চ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন ৪৪ রান করেন। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৮ রান আসে মুশফিকের ব্যাট থেকে।

এর আগে কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত এই ম্যাচে নিজেদের প্রথম ইনিংসে টস জিতে ব্যাটিং করতে নেমে নাঈম হাসানের বোলিং ঘূর্ণিতে ২৭২ রানে অলআউট হয় উত্তরাঞ্চল। ১০৭ রান খরচায় ৮ উইকেট নিয়ে একাই প্রতিপক্ষকে ধ্বসিয়ে দেন স্পিনার নাঈম। তবে নাঈমের দিনেও উজ্জ্বল ছিলেন মুশফিকুর রহিম। জাতীয় দলের এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান খেলেন ১৪০ রানের অনবদ্য একটি ইনিংস। এরপর নিজেদের প্রথম ইনিংসে ইয়াসির আলী চৌধুরীর সেঞ্চুরিতে ৩৩১ রানের পুঁজি পায় পূর্বাঞ্চল। ৫৯ রানে পিছিয়ে থেকে খেলতে নামার পর ২৬৯ রানে গুটিয়ে যায় উত্তরাঞ্চল।

অর্থসূচক/এএইচআর